Wednesday, January 22Welcome khabarica24 Online

৪০ বছর পর চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ যোগ্য উত্তরসূরী পেল- ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ

য়ন কান্তি ধুম:
শেখ হাসিনা দেশকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে যার স্বীকৃতি হিসাবে তিনি বিশ্ব নেতৃত্বে চতুর্থ স্থানে রয়েছে। আপনারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন। আমরা আওয়ামীলীগ সরকারের নেতৃত্বে বিদ্যুৎ, যোগাযোগ ব্যাবস্থার উন্নয়ন এবং সামাজিক নিরাপত্তা বেস্টনীর মধ্য দিয়ে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় আছি, ২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত হবে বলে বক্তব্যে জানিয়েছেন মীরসরাই উপজেলার ১২ নং খৈয়াছরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কর্তৃক শনিবার (১১ জানুয়ারি) “মুজিব বর্ষ ২০২০ উদযাপন এবং চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত সাধারাণ সম্পাদক শেখ মোঃ আতাউর রহমানের গন সংবর্ধনা ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী” অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এম.পি।

প্রধান অতিথি বলেন, মুজিব বর্ষ বাঙালী জাতির জন্য অনুপ্রেরণা। আমরা পেয়েছিলাম এমন একজন মহান নেতাকে যার জন্ম না হলে স্বাধীন বাংলাদেশ পেতাম না। আমি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি বঙ্গবন্ধু সহ ইতিহাসের রাখাল রাজাদের।

তিনি বলেন, এম এ আজিজ, এম এ হান্নান, আবদুল ওয়াহাব এর প্রবীন ও বর্ষীয়ান নেতাদের আসনে আজ শেখ আতা। যোগ্য উত্তরসূরী সে (শেখ আতা) পরিচ্ছন্ন নেতা কর্মীদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়েছে। ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ৪০ বছর উত্তর জেলা আওয়ামী লীগে ভোট হয় নাই। আমি যা বলেছি তাই হয়েছে। এবার কিছুটা ভিন্ন পরিস্থিতিতে সম্মেলন হয়েছে। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে সম্মেলন স্থল থেকে কথা বলেছি। তিনিও নির্বাচন দেওয়ার বিষয়ে একমত পোষন করেছেন। অবশেষে নিবেদিত কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে সভাপতি পদে এম.এ সালাম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে শেখ আতা নির্বাচিত হল। আমি গর্ব বোধ করি পরিচ্ছন্ন এবং সঠিক নেতৃত্ব এসেছে।

মীরসরাইয়ের উন্নয়ন নিয়ে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার প্রস্তাবিত জায়গার উপর দেশের সর্ববৃহৎ ইকোনমিক জোন মীরসরাই বাসিকে উপহার দিয়েছেন। বর্তমানে অনেকগুলো ইন্ডাস্ট্রি উৎপাদনে যাচ্ছে। যার সুফল অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মীরসরাইবাসী পাবে। এক কোটি লোকের কর্ম সংস্থান হবে। কেউ বেকার থাকবেনা। তবে অলস মানুষ, যারা কাজ করতে চায়না তারাই বেকার থাকবে বলে বলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ।

তিনি বলেন, আমাদের মহামায়া লেক দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম। খৈয়াছরা সহ সকল ঝর্ণাগুলো পাহাড়ের পাদদেশে। মালোশিয়ার আদলে মীরসরাইয়ের পাহাড় সমূহকে পর্যটন বান্ধব করা হবে। এই শীতেই ঢাকা থেকে একটি টিম এসে পর্যটনের পরিকল্পনায় আসবে বলে জানান তিনি।

সংবর্ধিত অতিথি শেখ আতাউর রহমান প্রথমেই বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরন করে, জাতীয় চার নেতা, ৩০ লক্ষ শহীদদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে আওয়ামীলীগে সভানেত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ২ লক্ষ্য মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীন বাংলার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি। তিনি বলেন, আমি আমার নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের নিকট দোয়া চাই। আমার সিনিয়রদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে আওয়ামীলীগের দায়িত্ব পালন করে যাব। আমার নেতার (ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন) পদাঙ্ক অনুসরণ করে দায়িত্ব পালনে নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান শেখ আতা।

একই মঞ্চে ১২ নং খৈয়াছরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সোহরাব হোসেন টুটুল এবং সাধারন সম্পাদক মাসুদ রানা প্রধান অতিথি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের হাতে কোক কেটে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ১২ নং খৈয়াছরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবের আহাম্মদ নিজামীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মহফুজুল হক জুনু মিয়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব জসিম উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আনোয়ার চৌধুরী বাহার, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন ভূঁইয়া, যুবলীগের আহবায়ক নুরুল মোস্তফা মানিক, যুগ্ম আহবায়ক মোঃ মাহফুজুল আলম, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তানবির হোসেন তপু, সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম, ছাত্রলীগ সভাপতি রাসেল ইকবাল চৌধুরী প্রমূখ।

সংবর্ধনা প্রদান করেন যথাক্রমে, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান- মীরসরাই উপজেলা শাখা, ৯ টি ওয়ার্ডের সভাপতি সম্পাকবৃন্দ, সৈদালী ওয়ার্ড, সমমনা সংঘ, সোপান সংঘ, স্মরনিকা সংঘ, খৈয়াছরা উচ্চ বিদ্যালয়, বজলুর সোবান উচ্চ বিদ্যালয়, পোল মোঘরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, খৈয়াছরা সরকারী প্রাথমিক বই দ্যালয়, বড়তাকিয়া বাজার পরিচালনা কমিটি এবং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ এবং ছত্রলীগ।