বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১, ২৯ আশ্বিন ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

২০ উপজেলায় বিএনপি জামায়াত স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচন বর্জন

election-voterless_83011
কেন্দ্র দখল, জাল ভোট, এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়াসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে ২০ উপজেলায় নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন ১৯ দল সমর্থক, বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। পঞ্চম দফায় সোমবার ৭৩ উপজেলায় নির্বাচন শুরুর পর দুপুর পর্যন্ত চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যানসহ ৩৭ জন প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। এর প্রতিবাদে ৯ উপজেলায় হরতাল আহবান করা হয়েছে। এগুলো হলো, চুয়াডাংগা সদর ও আলম ডাংগায় আধাবেলা , ঢাকার আড়াই হাজার,নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জ, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, সাতক্ষীরা সদর, দেবহাটা ও তালা উপজেলায়  সকাল সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে বিএনপি।
কেন্দ্র দখল, বিরোধী এজেন্টদের বের করে দেয়া, জাল ভোট দেয়া, কেন্দ্রে ভোটারদের আসতে বাধা দেয়াসহ সরকার সমর্থিত প্রার্থীদের বিরুদ্ধে ভোট ডাকাতির অভিযোগ এনে ওইসব উপজেলায় বিএনপি, বিএনপি বিদ্রোহী এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরাও নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।উপজেলাগুলো হলো- টাঙ্গাইলের ঘাটাইল, পটুয়াখালীর কলাপাড়া, ফেনীর ছাগলনাইয়া, জামালপুরের মাদারগঞ্জ, বরগুনার বামনা, পাথরঘাটা ও আমতলী, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার কসবা, ময়মনসিংহের গফরগাঁও, চুয়াডাঙ্গার সদর ও আলমডাঙ্গা, পাবনার তারাবুনিয়া, মুন্সিগঞ্জের লৌহজং, কুমিল্লার চান্দিনা, সাতক্ষীরার সদর, তালা, ও দেবহাটা, লক্ষ্মীপুর সদর ও রামগঞ্জ, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জের আড়াই হাজার ও রুপগঞ্জ। দিনের শুরুতে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা অধিকাংশ ভোট কেন্দ্র দখল করায় টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্যান্য দলের প্রার্থীরা নির্বাচন বর্জন করেছে। ভোট কারচুপির অভিযোগে ঘাটাইলে বিএনপির মনোনিত প্রার্থী আখম রেজাউল করিম (দোয়াত কলম), বিএনপির বিদ্রোহী আব্দুর রশিদ মিয়া (মোটর সাইকেল), জাতীয় পার্টির আব্দুল হালিম (আনারস) ও ইসলামী আন্দোলনের আনছার আলী (কাপ পিরিচ) নির্বাচন বর্জন করেন। স্ব স্ব দলের নেতা কর্মীরা ও স্থানীয় জনতা টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। পাশাপাশি ইউএনও অফিস ঘেরাও করা সহ ভাংচুর করা হয় আ’লীগের অফিস। নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলায় নির্বাচন বর্জন করেছেন ১৯ দলের প্রার্থীরা। দুপুরে ১৯ দলের চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে নির্বাচন বর্জন ও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আবেদনপত্র জমা দেন। এতে নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি, জালিয়াতি, পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া, ভোটকেন্দ্র দখলের অভিযোগ আনা হয় আওয়ামী লীগ সমর্থক প্রার্থীর বিরুদ্ধে। নির্বাচন বর্জনের পর মঙ্গলবার আড়াইহাজারে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।১৯ দলীয় জোট সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী গাজী মাসুদ (আনারস), নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী পারভীন আক্তার (পদ্মফুল), বিএনপির বিদ্রোহী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম (টিউবওয়েল), ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জামায়াতের ইলিয়াস মোল্লা মৌখিকভাবে বর্জনের বিষয়টি নির্বাচন কর্মকর্তাদের জানালেও তারা কোন লিখিত জমা দেয়নি।
কুমিল্লা জেলার চান্দিনায় কেন্দ্র দখল ও ভোট কারচুপির অভিযোগে বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মফিজউদ্দিন ভূঁইয়া (দোয়াত-কলম) নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, সকাল থেকেই সরকারদলীয় প্রার্থী তপন বকশীর (আনারস) ক্যাডাররা অধিকাংশ কেন্দ্র দখল করে নেয়। তারা বিএনপির পোলিং এজেন্টদের বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে অবৈধভাবে সিল মারে। চুয়াডাঙ্গা সদর ও আলমডাঙ্গায় উপজেলা নির্বাচনে জাল ভোটের অভিযোগ এনে ভোট বর্জন করেছে বিএনপি ও জামায়াত। সোমবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা ও আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবে পৃথক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মজিবুল হক মালিক মজু ও জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী নুরুদ্দিন টিপু। ভোট কারচুপির প্রতিবাদে চুয়াডাঙ্গায় মঙ্গলবার আধাবেলা হরতাল আহ্বান করেছে জেলা বিএনপি। সাতক্ষীরার তালা উপজেলা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী বদরুজ্জামান। ভোটগ্রহণ শুরুর আগেই ব্যালেট পেপারে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষ সনৎ এর (কাপপিরিচ) প্রতীকে সিল মারার অভিযোগে ভোট বর্জন করেছেন বলে জানান বদরুজ্জামান। সকাল ১০টায় পাটকেলঘাটা বিএনপি অফিসে সংবাদ সম্মেলনে তিনি নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় উপজেলা নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোতে ৭ প্রার্থী ভোট বর্জন করেছেন। সরকারদলীয় প্রার্থীরা তাদের সমর্থকদের দিয়ে কেন্দ্র দখল, প্রতিপক্ষের লোকজনদের মারধরসহ ভোট কারচুপির অভিযোগে ১১টার দিকে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান, সতন্ত্র প্রার্থী আক্তারুজ্জামান কোক্কা, ইসলামী শাসন তন্ত্রের মাওলানা হাবিবুর রহমানসহ সাত প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন করে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। ফেনীর ছাগলনাইয়ায় নির্বাচনের আগে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করা, কেন্দ্র দখল, ভোট ডাকাতি, কেন্দ্রে কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা ও এজেন্টদের বের করে দেওয়াসহ নানা অভিযোগ তুলে ভোট বর্জন করেছে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা। সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি নুর আহাম্মদসহ ভাইস ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। এ সাংবাদ সম্মেলনে বিএনপি সমর্থিত সকল প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। ভোটকেন্দ্র দখল, জালিয়াতি, এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া ও সমর্থকদের উপর হামলার অভিযোগ এনে ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলা নির্বাচন বর্জন করেছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মুশফিকুর রহমান (মোটরসাইকেল)। তিনি একে তামাশার নির্বাচন উল্লেখ করে পুননির্বাচনের দাবি জানান।  বেলা ১২টায় নিজে বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন ডেকে তিনি এই ঘোষণা দেন। এ সময় বিএনপি সমর্থিত ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।বরগুনার আমতলী, বামনা ও পাথরঘাটা উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। উপজেলা নির্বাচনে সরকার-দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে কেন্দ্র দখল, ভোট কারচুপি ও এজেন্টদের বের করে দেয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে বেলা সোয়া দুইটার দিকে পাথরঘাটা ও বামনার প্রার্থীরা বরগুনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন। একই সময় আমতলীর প্রার্থীরা স্থানীয় প্রেসক্লাবে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।নির্বাচন বর্জন করা প্রার্থীরা হলেন- পাথরঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বিএনপি-সমর্থিত হাবিবুর রহমান, নির্দলীয় প্রার্থী জাকির হোসেন সিকদার ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-সমর্থিত প্রার্থী মনিরুজ্জামান। বামনা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি-সমর্থিত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ মানজুরুর রব। এ ছাড়া আমতলী উপজেলার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামসুদ্দিন আহমেদ, বর্তমান চেয়ারম্যান ও নির্দলীয় প্রার্থী সালাহউদ্দিন তালুকদার, আওয়ামী লীগের আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী মো. শামসুদ্দিন ও বিএনপি-সমর্থিত প্রার্থী জালাল উদ্দিন ফকির। এ ছাড়া এই তিন উপজেলার সাতজন পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও চারজন নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।
উৎস- যুগান্তর