মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

১১৩ বছরের বৃদ্ধার সঙ্গে ৭০ বছর বয়সীর প্রেম ও বিয়ে

25726_er

ভালোবাসার সত্যিই হয়তো কোন বয়স নেই। ১১৩ বছর বয়সী এক বৃদ্ধার সঙ্গে ৭০ বছরের এক ব্যক্তির শুভ পরিণয়ে আবদ্ধ হবার ঘটনা সত্যিই সবাইকে চমকে দেবার মতো। তাদের সম্পর্কের শুরু পরস্পরকে ভালোলাগা এবং এক পর্যায়ে তা ভালোবাসায় রূপান্তরিত হবার মাধ্যমে। আর পরিপূর্ণ এ লাভ-স্টোরিতে প্রত্যাখ্যানের গল্পটাও রয়েছে। চীনের একটি নার্সিং হোমে তাদের সম্পর্কের শুরু। কনে আজাতিহান সায়ুতি শেষ পর্যন্ত বর আইমতি আহেমতির ‘হ্যাঁ’র সঙ্গে হ্যাঁ মেলালেন। প্রথমদিকে অবশ্য প্রত্যাখ্যানের যন্ত্রণায় পুড়তে হয়েছে আহেমতিকে। চীনের পশ্চিমাঞ্চলীয় জিনজিয়াং প্রদেশের বাচু কাউন্টিতে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠানটি সুসম্পন্ন হয়। গত বছরে তাদের রোম্যান্সের শুরু। ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে পরিচয়, এরপর প্রেম, বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, ২০১৪ সালের এপ্রিলে আহেমতির প্রস্তাবে সায়ুতির ইতিবাচক সাড়া এবং মে মাসে পরিণয়। খাবার টেবিলে বসে ৭০ বছরের আহেমতি ১১৩ বছরের সায়ুতিকে খাবার এগিয়ে দিয়ে তার পছন্দের জানান দিয়েছিলেন। এভাবেই ছিল শুরু। ওই নার্সিং হোমের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী ও রোগী গত সপ্তাহে তাদের বিয়েতে উপস্থিত হয়েছিলেন। কনের মুখে ছিল ঘোমটা ও বরের মাথায় ছিল টুপি। মুসলিম রীতি অনুযায়ী তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানের পর আহেমতি বলছিলেন, আমরা দু’জনেই ভীষণ খুশি। সে আমার চেয়ে বয়সে অনেক বড় হলেও, তাতে আমার কিছু যায়-আসে না। সায়ুতি আমার বেশ যতœ নেয় ও খাবার খাওয়ার সময় তার অংশের মাংস আমাকে খেতে দেয়। তিনি বললেন, তার প্রথম প্রস্তাবটি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন সায়ুতি। কারণ, এতো বৃদ্ধ বয়সে বিয়ের ব্যাপারে লজ্জা পাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু, দমে যাওয়ার পাত্র নন আহেমতি। তিনি বলছিলেন, একজন তরুণের মতোই তাকে মানানোর চেষ্টা করতে থাকি আমি এবং গত এপ্রিলে সে আমার প্রস্তাবটি গ্রহণ করে।