বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

সারাদেশে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ১৯

vote-5-
সারাদেশে চরম আতঙ্ক ও ভীতির মধ্য দিয়ে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে।বিকেল ৫টার পর শুরু হয়েছে ভোট গণনা।  নির্বাচনী সহিংসতায় এ পর্যন্ত সারাদেশে ১৯জন নিহত হয়েছে।এতে আহত হয়েছে শতাধিক। নিহতদের মধ্যে দিনাজপুরের ৩ জন, রংপুরের পীরগাছায় ২ জন, নীলফামারীতে ২ জন, ফেনীর সোনাগাজীতে ২ জন, লক্ষীপুরে ১ জন, যশোরের মনিরামপুরে ১জন, নওগায় ১জন,  ঠাকুরগাঁওয়ে ২ জন, লালমনিরহাটে ১ জন।নিহতদের মধ্যে জামায়াত শিবির, যুবদল, ছাত্রদলসহ একজন আনসার সদস্য রয়েছেন। এদিকে সন্ধ্যায় বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ড: ওসমান ফারুক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন নির্বাচনে আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে সারাদেশে ২১জন কর্মী নিহত হয়েছে।এদিকে নির্বাচনকে ঘিরে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে নজীরবিহনী সহিসংতা। শনিবার ও আজ রোববার ব্যাপকহারে ভোট কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। প্রায় দুই শতাধিক ভোট কেন্দ্রে হামলা ও পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সহিংসতায় নিহত হয়েছে ১৯ জন।ইতোমধ্যে উত্তরাঞ্চলের রংপুর, দিনাজপুর, পীরগাছা ও ঠাকুরগাও জেলায় ভোট গ্রহণ বন্ধ করে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে।
জালভোট, পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া ও সমর্থক-কর্মী ও ভোটারদের বাধা দানের অভিযোগ এনে ১৩ জেলার আসনের ১৫ জন প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন।রংপুরের পীরগাছায় ভোট কেন্দ্র দখলে নিতে গেলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে দুই জামায়াত কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। দিনাজপুর সদর উপজেলায় নির্বাচনের সরঞ্জামাদি ছিনিয়ে নেয়ার সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন এক বিএনপি কর্মী। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রাযপুর ছেপড়িগুড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দুর্বৃত্তদের হাতে জবায়দুর হক নামে এক সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার নিহত হয়েছেন। নীলফামারীর ডিমলায় ভোটকেন্দ্রে আগুন লাগানোর সময় পুলিশের গুলিতে জাহাঙ্গীর নামে এক শিবির কর্মী নিহত হয়েছেন। এদিকে একই জেলার জলঢাকার একটি কেন্দ্র দখল করতে গেলে রোববার বেলা সোয় ৮টায় র‌্যাবের গুলিতে মমতাজ আহমেদ নামে এক জামায়াত কর্মী নিহত হয়েছেন।নওগার মান্দায় চকদেবীরাম গ্রামে ভোট কেন্দ্রে আইনশৃংখলা বাহিনীর সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় ৭জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এই কেন্দ্রে ভোটদানে বাধা দেয়ার সময় যেৌথবাহিনীর গুলিতে আহত বাবুল (৩৫) পরে বিকেলে মারা যান।  ঝিনাদহের কোটচাদপুরে পাশপাতিলা ভোট কেন্দ্রে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে প্রিজাইডিং অফিসারসহ ৭জন আহত হয়েছে। এছাড়া বিকেলে সাতকানিয়া বাড়ুয়াপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক সংঘর্ষে সহকারি প্রিজাইডিং অফিসারসহ ৫জন আহত হয়েছে।
মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলার একটি ভোট কেন্দ্র দখলে নিতে শনিবার গভীর রাতে ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটালে পুলিশের তাড়া খেয়ে পানিতে পড়ে এক বিএনপি কর্মী নিহত হয়েছেন। এদিকে ফেনীর সোনাগাজীতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জামশেদ ও শহিদুল্লাহ নামে দুই যুবদল কর্মী নিহত হয়েছেন। এসয় পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছে অন্তত: ১০জন।বেলা ৩টার দিকে ঠাকুরগাও জেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বাসুদেবপুর প্রাইমারী স্কুলে পুলিশের গুলিতে দুজন ছাত্রদল কর্মী নিহত হয়েছেন। এরা হলেন, হারুন (৩০) ও জয়নাল (২৭)। ইতোমধ্যে ভোটগ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করেছেন রিটার্নিং অফিসার। এছাড়াও ফুলবাড়ি উপজেলায় একটি কেন্দ্রে দুর্বত্তদের হামলায় একজন আনসার সদস্য মারা গেছেন।লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার মাছিমপুর উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে জামায়াত-শিবির কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক শিবির কর্মী নিহত হয়েছেন। তার নাম মো. রুবেল হোসেন।এদিকে রোববার দুপুরে যশোরের মনিরামপুর উপজেলার বাজিতপুর কেন্দ্রে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে আহত জামায়াত কর্মী সন্ধ্যায় মারা গেছেন।সহিংতায় এ পর্যন্ত প্রায় দেড় শতাধিক ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। তবে এসকল কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ কখন শুরু হবে তা নিশ্চিত করেনি নির্বাচন কমিশন।প্রধান বিরোধী দলের নেতৃত্বাধীন ১৮ দলসহ নিবন্ধিত প্রায় ২৮টি দল এ নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় ১৫৩ জন প্রার্থী বিনা আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বিরোধী দল এ নির্বাচনকে প্রার্থী বিহীন ও ভোটার বিহীণ তামাশার নির্বাচন আখ্যা দিয়ে তা বর্জনের জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন।
উৎস-যুগান্তর

Leave a Reply