শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

সংসদে ২ লাখ ৫০ হাজার ৫০৬ কোটি টাকার বাজেট পেশ

muhit-sangsad_107897

২০১৪-২০১৫ অর্থ বছরের বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টা ৩৬ মিনিটে স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদে তিনি বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন। সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবর্গ সংসদে উপস্থিত রয়েছেন।এছাড়া রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ,কুটর্নীতিক বর্গ এসময় সংসদে উপস্থিত ছিলেন।এর আগে সংসদ সচিবালয়ে কেবিনেট বৈঠকে নতুন বাজেট অনুমোদন দেয়া হয়। পরে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ বাজেট প্রস্তাবে অনুমোদন দেন।২০১৪-১৫ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ৭ দশমিক ৩ শতাংশ ধরা হয়েছে। বাজেটের আকার ২ লাখ ৫০ হাজার ৫০৬ কোটি টাকা। এটি চলতি অর্থবছরের মূল বাজেটের চেয়ে ১৭ শতাংশ বেশি। আজ সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে প্রস্তাবিত এ বাজেটের আকার অনুমোদিত হয়। বাজেট ঘাটতি থাকছে ৬৭ হাজার ৫৫২ কোটি টাকা যা জিডিপির ৫ শতাংশ।এরমধ্যে ঘাটতি (অনুদান ছাড়া) ৬৭ হাজার ৫৫২ কোটি টাকা। মূল এডিপি ধরা হয়েছে ৮০ হাজার ৩১৫ কোটি টাকা। অভ্যন্তরীণ ঋণ ৪৩ হাজার ২৭৭ কোটি, বৈদেশিক ঋণ ১৮ হাজার ৬৯ কোটি টাকা ধরা হয়েছে। এছাড়া রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ লাখ ৮২ হাজার ৯৫৪ কোটি টাকা।বাজেটে অন্যান্য খাতের মধ্যে সর্বোচ্চ শিক্ষা খাতে ৩২ হাজার ৭৮০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এছাড়া পরিবহন খাতে ২৪ হাজার ৪শ কোটি টাকা, স্থানীয় সরকার খাতে ১৭ হাজার ৭৯০ কোটি টাকা, কৃষি খাতে ১৯ হাজার ১শ’ কোটি টাকা, সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ১৫ হাজার ৫শ কোটি টাকা, স্বাস্থ্য খাতে ১১ হাজার ৭১৬ কোটি টাকা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ১১ হাজার ৫৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।অর্থমন্ত্রী তার বাজেট বক্তৃতায় বলেন, নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি সরকারের এ মেয়াদে আর্থ সামাজিক ব্যবস্থা আরো সুসংহত করতে চাই।টানা দ্বিতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগের সরকার গঠনের পর এটি প্রথম বাজেট। অর্থমন্ত্রী হিসেবে আবুল মাল আবদুল মুহিতের এটি অষ্টম বাজেট।