শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

সংবাদকর্মীর বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে স্থাপনা নির্মানস্থল পরিদর্শন করলেন এসিল্যান্ড : নির্মান কাজ বন্ধের নির্দেশ


নিজস্ব প্রতিনিধি :: দীর্ঘ ২৫ বছরের চলাচলের রাস্তা দখল করে বাড়ি নির্মানের অভিযোগে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন মীরসরাই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)। এসময় তিনি বিভিন্ন পক্ষের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নির্মান কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করেন। জোর করে চলাচলের পথ বন্ধ দেয়ার অভিযোগে বৃহস্পতিবার (২৫জুন) সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তিনি।
জানা গেছে, মীরসরাই পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড পূর্ব মীরসরাই এলাকার জনৈক হাজী শাহ আলম কিছুদিন আগে বহুতল ভবন নির্মান শুরু করেন। এসময় তিনি পার্শ্ববর্তী মরিয়ম আক্তার, সুলতান আহম্মদ ও রহিমা বেগমের দীর্ঘ ২৫ বছরের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি জোরপূর্বক গভীর গর্ত খুড়ে এবং টিনের ঘেরা দিয়ে রুদ্ধ করে দেন। এতে সংবাদকর্মী দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ প্রতিনিধি আবু সাঈদ সহ ১০টি পরিবারের হাটাচলার একমাত্র পথ বন্ধ হয়ে যায়। বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করলেও প্রভাবশালী হাজী শাহ আলম কর্ণপাত না করে নির্মান কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। উপরন্তু তিনি নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ভাবে প্রভাব বিস্তার এবং প্রয়োজনে লাশ ফেলার হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন ।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর পক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দিলে বিষয়টি সরেজমিনে তদন্তে যান উপজেলা সহকারী কমিশনার রাশেদুল ইসলাম। সরেজমিনে তদন্তকালে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাখের ইসলাম রাজু জানান, চলাচলের রাস্তার প্রতিবন্ধকতা নিরসনে হাজী শাহ আলমের সাথে প্রতিবেশিরা সমঝোতার আগ্রহ দেখালেও হাজী শাহ আলমের অনড় অবস্থানের কারনে সম্ভব হয়নি। পরিবারগুলোর ২৫ বছরের চলাচলের পথ এভাবে অবরুদ্ধ করে দেয়াটা দৃষ্টিকটু ও অমানবিক। এ বিষয়ে রাশেদুল ইসলাম তানজির জানান, চলাচলের রাস্তা বন্ধের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। উভয়পক্ষের কাগজপত্র পর্যালোচনার জন্য শীঘ্রই ডাকা হবে। তার আগ পর্যন্ত নির্মান কাজ বন্ধ রাখার জন্য হাজী শাহ আলমকে মৌখিক ভাবে বলা হয়েছে।