বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

যুক্তরাজ্য ‘খ্রিস্টানদের দেশ’ : ডেভিড ক্যামেরন

image_75404.david cameron_0

প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন যুক্তরাজ্যকে খ্রিস্টানদের দেশ হিসেবে মন্তব্য করেছেন। তাঁর এ মন্তব্যের পরপরই দেশটির ৫০ জনেরও বেশি বিশিষ্ট ব্যক্তি এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরন বলেছেন, নিজেদের খ্রিস্টান দেশ হিসেবে পরিচয়ে যুক্তরাজ্যকে আরো আত্মবিশ্বাসী হতে হবে।
এ ছাড়া ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী ইস্টার সানডে উপলক্ষে বক্তব্যে বলেছিলেন যে, তিনি একমাত্র খ্রিস্টান ধর্মের মধ্যেই শান্তি খুঁজে পান। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের পর পরই দ্য টেলিগ্রাফ পত্রিকায় দেশটির ৫০ জনেরও বেশি শিল্পী, সাহিত্যিক, বিজ্ঞানী, শিক্ষক ও অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তি নিজ নিজ স্বাক্ষরসহ এক প্রতিবাদলিপি প্রকাশ করেছেন। সেখানে তাঁরা বলেছেন, ক্যামেরনের এ বক্তব্য দেশটিকে বর্ণবাদ ও ধর্মান্ধতার দিকে ঠেলে দেবে।তাঁরা আরো বলেন, যুক্তরাজ্য চার্চচালিত দেশ নয়। এটি সেক্যুলার ও বিভিন্ন ধর্মের লোকদের সম্মিলিত একটি দেশ। লিখিত প্রতিবাদে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ধর্মের ব্যবহার করা উচিত নয় বলেও মন্তব্য করা হয়েছে। বিশিষ্ট ব্যক্তিরা ছাড়াও দেশটির বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা ও অ্যাকাডেমি প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের বিপক্ষে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।প্রসঙ্গত, যুক্তরাজ্যে চালানো বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে দেশটির ৬৫ শতাংশ নাগরিকই কোনো ধর্ম পালন করে না। মাত্র ২৯ শতাংশ লোক বলেছে তারা ধর্ম পালনের চেষ্টা করে। এ ছাড়া দেশটির তরুণ সম্প্রদায়ের মধ্যে ৩২ শতাংশই ধর্মে বিশ্বাসী নয়।যুক্তরাজ্য বিশ্বব্যাপী ধর্মনিরপেক্ষ ও বর্ণবৈষম্যবিরোধী প্রচারণা চালিয়ে থাকে। অথচ দেশটিতেই বিভিন্ন সময় কঠোর বর্ণবাদ ও বিশেষ ধর্মের ক্ষেত্রে কট্টর মনোভাবের ঘটনা লক্ষ করা যায়।