Tuesday, November 13Welcome khabarica24 Online

মীরসরাইয়ে ব্যবসার ফাঁদে ৫ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে প্রতারক সাদ্দাম পলাতক

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ
ব্যবসার নামে ফাঁদে ফেলে চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে এক যুবকের সর্বস্ব হাতিয়ে নিয়ে উধাও প্রতারক। জীবনের সঞ্চিত সর্বস্ব হারিয়ে যুবক মোঃ আবুল কাশেম ( ৩৬) অবশেষে বুধবার ( ১৫ নভেম্বর) সকাল ১১টায়
অশ্রুসিক্ত নয়নে মানবিক ও মৌলিক সহযোহিতা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করে মীরসরাই প্রেস ক্লাবে । পুলিশ জানায় আমরা অভিযুক্ত অপরাধিকে ধরার চেষ্টা করছি।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে আবুল কাশেম এর গ্রামের বাড়ী রাউজান থানার ফতেনগর গ্রামে। তার পিতা দানা মিয়া ছোট বেলাতেই মৃত্যুবরণ করে। অনেক কষ্ট করে নিজে মাঠে কাজ করে পড়ালিখার খরচ জুগিয়েছে। এরপর মীরসরাইস্থ পল্লী বিদ্যুত সমিতিতে চুক্তিভিত্তিতে মিটার রিডারের চাকুরি করছে।
চাকুরীর সুবাধে মীরসরাই অবস্থান করায় সাজ্বাদ হোসেন সাদ্দাম (২৮) নামে যুবকের সাথে তার বন্ধুত্ব হয় । সাদ্দাম মীরসরাই পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের মৃত নুরুল আবছার এর পুত্র।
সাদ্দাম তাকে মেরিজ সিগারেট এর চালান কিনলে অনেক টাকা লাভ হবে বলে কাশেমের জীবনের চাকুরি ও টিউশানির সঞ্চিত সকল অর্থ ৫ লক্ষ ৪১ হাজার টাকা তুলে দেয় । এসময় স্থানীয় জনৈক কিছু লোককে সাক্ষি রাখা ছাড়া কোন লিখিত চুক্তি ও করেনি সে। ইতিমধ্যে সাদ্দাম নিজের নামে ৪ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকার একটি চালান ক্রয় রশিদ এনে দেয়। অপর রশিদটি পরে দিবে বলে। কিছুদিন পর সে কাশেম থেকে উক্ত রশিদ ও নিয়ে ফেলতে চাইলে সাদ্দাম এর গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হয়। তখন কাশেম আর বিলম্ব না করে সংরক্ষিত চালান রশিদটি নিয়ে মেরিজ সিগারেট কোম্পানীর মীরসরাই ফারুকিয়া মাদ্রাসা রোড এলাকাস্থ ফয়েজ এন্ড সন্স এর অফিসের ব্যবস্থাপক আব্দুল মোতালেব এর কাছে গেলে তিনি জানান সাদ্দাম এর কাছে সংরক্ষিত মেমোটি সে হারিয়ে গেছে বলে জানিয়ে সে লভ্যাংশ সহ পুরো টাকা উত্তোলন করে নিয়ে গেছে।
এমতাবস্থায় কাশেম তার মীরসরাই পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডস্থ সাদ্দাম এর বাড়িতে গিয়ে উক্ত টাকার বিষয়ে অভিযোগ করলে তার মা, বড় ভাই স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাকের ইসলাম রাজু, মীরসরাই পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ফাহাত আল সংগ্রাম টাকা আদায় করিয়ে দেয়ার বিষয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। অবশেষে মিরসরাই থানার তৎকালিন এসআই কামাল উদ্দিন এর মাধ্যমে একটি লিখিত অভিযোগ ও প্রদান করেন। তদস্থলে বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত এসআই শাখাওয়াত হোসেন এর কাছে এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন বাদী কাশেম লিখিত কোন প্রমান না রাখার পর ও অভিযুক্ত যুবক সাদ্দামকে আটক করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে, কেউ কোন প্রকার হদিস পেলে আমরা এই বিষয়ে সর্বাত্মকভাবে আইনগত উদ্যোগে আন্তরিক। এই বিষয়ে মীরসরাই থানার ওসি সাইরুল ইসলাম বলেন তথ্য প্রমানাদির ঘাটতি স্বত্বে ও অভিযুক্ত যুবককে ধরে আবেদিত ব্যক্তিকে আটকের চেষ্টা সহ ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তিকে মানবিক সহযোগিতার বিষয়ে আমরা আন্তরিক। পালিয়ে থাকা যুবকের কোন সন্ধান দিতে পারলে কঠোর আইনি উদ্যোগ নিবেন বলেন।
জনাব কাশেম সংবাদ সম্মেলনে অশ্রুসিক্ত নয়নে বলেন আমার জীবনের সকল সঞ্চয় উক্ত ব্যবসার কাজে প্রদান করে বর্তমানে আমি নিঃস্ব। বর্তমানে আমার মা কে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমাকে উক্ত অর্থ আদায় এর বিষয়ে সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে আইনগত ও মানবিক সহযোগিতা প্রার্থনা করেন।