শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মীরসরাইয়ে অগ্নিকান্ডে সর্বস্ব হারানো ব্যবসায়ীরা ঘুরে দাঁড়াতে চায়

খবরিকা রিপোর্ট গত ৮ ফেব্রুয়ারী মীরসরাই পৌরসদরস্থ কলেজ রোডে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে সর্বস্ব হারানো ২৩ জন ব্যবসায়ী ঘুরে দাঁড়াতে চায়। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ অনেকে দিশেহারা অবস্থায় দিন যাপন করছেন। স্থায়ী ও ভার্সমান মিলে মোট ২৩টি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের মোট ক্ষতির পরিমান ব্যবসায়ীদের ভাস্যমতে প্রায় ৭ কোটি টাকা ।
আগুনে পুড়ে যাওয়া আল-আমিন ট্রেডার্সের মালিক মোহাম্মদ ইউছুফ কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, আমার সব শেষ হয়ে গেছে। প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা মালামাল আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ইসলামি ব্যাংক থেকে ২৫ লক্ষ টাকা সিসি লোন নিয়ে ব্যবসায় নেওয়া ছিলো এখন আমি কিভাবে ব্যাংক ঋণ শোধ করবো।
আরেক ব্যবসায়ী হক সু স্টোর মালিক তোতা মিয়া জানান, কিছুদিন আগে এনজিও থেকে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়ে দোকানে নতুন মডেল এর জুতো তুলি কিন্তু আগুনো আমার সব শেষ করে দিয়েছে আমার দোকানে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে একবারে ছাই হয়ে যায়।

বাবু স্টোর মালিক বজেন্দ্র কুমার নাথ বলেন, আগুনে আমার প্রায় ৭০ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে। বছরের শুরুতে নতুন করে মালামাল তুললে ও এখন সব আগুনে পুড়ে চাই হয়ে গেছে।

আরেক ভার্সমান জুতো ব্যবসায়ী আব্দুল সত্তর স্বপন জানান এখানে প্রায় ৩ বছর যাবৎ এই জুতো বিক্রি করে কোন মতে পরিবারের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছি এই আগুনে আমার প্রায় ৩ লক্ষ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

আগুনে পুড়ে যাওয়া বাজার দেখতে আসা ম্যানসন ফার্মা মাকেটিং অফিসার সাহাব উদ্দিন জানান, সাম্প্রতি এই ধরণের ভয়াবহ অগ্নিকান্ড মীরসরাই পৌর সদরে আর হয়নি। সরকারী বেসরকারী সহযোগীতার মধ্যে দিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা ঘুরে দাঁড়াতে পারবে।

নীল মানবাধিকার উন্নয়ন সংস্থার কেন্দ্রীয় কমিটি শিক্ষা ও সাংষ্কৃতিক সম্পাদক আনোয়ারুল হক নিজামী বলেন, আগুন নির্বাপকের জন্য দেশের পৌরসদরের প্রতিটি গলিতে অগ্নি নির্বাপক সিলিন্ডার থাকা জরুরী এবং পৌরসদরে রোড গুলোতে ভার্সমান দোকান উচ্ছেদ করা জরুরী। কারণ সেদিন ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি কলেজ রোডে ভার্সমান দোকান কারণে প্রবেশ করতে অসুবিধা কারণে আগুন নিভাতে দেরি হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী রশিদুল হাসান জানান, ঐ দিন মাঝ রাতে হঠাৎ করে ঘুম ভেঙ্গে যায়। চারদিক থেকে চিৎকার আর চেচামেচি ও আগুনের লেলিহান শিখা অল্প সময়ের মধ্যে দেখলাম ব্যবসায়ীদের সর্বস্ব পুড়ে ছাই হতে। ফায়ার সার্ভিস আসলেও একটি দোকান ও রক্ষা করতে পারেনি।

মীরসরাই পৌরসভার মেয়র গিয়াস উদ্দিন জানান, ক্ষতিগ্রস্থ স্থায়ী ব্যবসায়ীদের সহযোগিতার জন্য মীরসরাই সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনকে জানানো হলে তিনি সহযোগিতার আশ্বাস দেন।