Monday, July 23Welcome khabarica24 Online

মীরসরাইতে ভার্কের অভ্যন্তরীণ আন্দোলনের জের ধরে হামলা, আহত ৫

মীরসরাই প্রতিনিধি :: মীরসরাই উপজেলা সদরস্থ ভার্ক নামক সংস্থার অভ্যন্তরীন আন্দোলনের জের ধরে হামলায় ৫ কর্মচারী আহত হবার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে উক্ত হামলার ঘটনা ঘটে। বুধবার ( ১০ জানুয়ারী ) সকালে এই বিষয়ে মীরসরাই থানায় একটি আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রাথমিক মুচলেকায় সুরাহা হয় বলে জানা যায় ।
ভার্ক এর মীরসরাই সদর শাখার ঋন কার্যক্রমের ব্যবস্থাপক রাজিবুল ইসলাম এর স্ত্রী আফরোজা বানু জানান বেশ কিছুদিন ধরে বেতন ভাতা বৃদ্ধি ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধার দাবীতে বিভিন্ন শাখার কিছু এনজিওকর্মী আন্দোলন করছিল। তার মধ্যে আমার স্বামী ও ছিল। মঙ্গলবার ( ৯ জানুয়ারী ) তিনি স্বাভাবিক অফিশিয়াল কার্যক্রম সেরে অফিসের পাশ্ববর্তি ভাড়াবাসায় এসে অবস্থান করছিলেন। গভীর রাতে সংস্থার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের একদল এসে আমার স্বামীকে বেদমভাবে মারতে মারতে তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে আমার স্বামীকে আর পাওয়া যাচ্ছে না। ভার্ক এর হাসপাতাল শাখার ব্যবস্থাপক খালেদা আক্তার জানান রাতে আমাদের সহ পরিচালক খন্দকার হাসান আল রান্না, অর্থ উপপরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান সহ কয়েক গাড়ি কর্মকর্তা কর্মচারি এসে পূর্বের ম্যানেজার রাজিব, হিসাব রক্ষক হারুন, সহকারি সাইফুল সহ অন্তঃত ৫জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়। এক পর্যায়ে অফিসে পরস্পর মারামারি পর্যায়ের ঘটনার ও সৃষ্টি হয়। এই বিষয়ে সংস্থার পরিচালক এনামুল হক মিনা বলেন আসলে হামলা নয় দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি এক পক্ষ পালিয়ে যাবার চেষ্টাকালে আহত হবার ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন সংস্থার ৫ লক্ষাধিক পাওনা টাকার বিষয়ে আমরা মীরসরাই থানায় একটি লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে মীরসরাই থানা পুলিশ রাজিবের স্ত্রী আফরোজা বানুকে ডেকে আনেন এবং স্বামীকে কর্তৃপক্ষের হস্তগত করার প্রতিশ্রুতি গ্রহন করে। স্ত্রী আফরোজা পাওনার বিষয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে জানান তাঁর স্বামী গুরুতর আহত অবস্থায় প্রাণের ভয়ে কোথায় গেছেন তিনি জানেন না। এই বিষয়ে মীরসরাই থানার ওসি সাইরুল ইসলাম বলেন আমরা নিখোঁজ ব্যক্তির স্ত্রী ও শিশুকে ডেকে আনলে ও অবুঝ শিশুর বিষয়ে মানবিকতার বিবেচনায় স্থানীয় বাড়িওয়ালা মোস্তাফিজুর রহমান ও স্ত্রীর দায়িত্বে সংস্থার পাওনার বিষয়ে সুরাহা করার মুচলেকার মাধ্যমে বাদীর সাথে সুরাহা করে দিই।