শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মীরসরাইতে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল এক স্কুল ছাত্রী

বিয়ের জন্য এবার বার্ষিক পরীক্ষা দিতে পারেনি নিপা

images

মীরসরাইতে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল ৯ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন মীরসরাই উপজেলা শাখার উদ্যোগে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহম্মদ আশরাফ হোসেনের নির্দেশে গতকাল বৃহস্পতিবার (১৮ ডিসেম্বর) উক্ত বিবাহ বন্ধ করা হয়। জানা গেছে, উপজেলার বারইয়াহাট বালিকা বিদ্যালয়ে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী শারমিন আক্তার নিপা (জন্ম ১২ ফেব্র“য়ারী ১৯৯৯ইং) এর শুভবিবাহ তার পিতা খুরশিদ আলম ঠিক করেছিল। বরের নাম মোঃ মফিজ, সে ফাজিলপুরের শুভপুর গ্রামের নুরুল হুদার পুত্র। কনের বাড়ী মীরসরাই উপজেলার হিঙ্গুলী গ্রামে। নির্ধারিত এই বিবাহ আজ বৃহস্পতিবার কনের পিত্রালয়ে হওয়ার কথা। মানবাধিকার কমিশন মীরসরাই উপজেলার শাখার সাধারণ সম্পাদক এই কিশোরীর বিয়ের খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আশরাফ হোসেনকে বিষয়টি অবহিত করলে নির্বাহী কর্মকর্তা হিঙ্গুলী ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার উদ্দিন পিন্টু এর মাধ্যমে কিশোরীর বাবাকে উপজেলায় ডেকে এনে লিখিত মুচলেকা দিয়ে উক্ত বিবাহ বন্ধ করেন।
বিদ্যালয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে আরো জানা যায় কিশোরী নিপাকে এই বিয়ের জন্য বাবা মা এবারের বার্ষিক পরীক্ষায় ও অংশগ্রহন করতে দেয়নি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে প্রশাসন সব সময় সচেষ্ঠ। বাল্যবিয়ের ব্যাপারে অভিভাবকসহ সকলকে এই ধরণের কর্মকান্ড বিরত থাকতে হবে। অন্যথায় আইনানুগ ব্যবস্থা করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর।