Tuesday, July 25Welcome khabarica24 Online

মীরসরাইতে প্রকাশ্য দিবালোকে সড়ক ও পাউবোর অর্ধশতাধিক গাছ কেটে ফেললো

শরীফ উদ্দিন শিবলু ঃ আজ বুধবার ( ১৫অক্টোবর) সকাল ৮টা থেকে প্রকাশ্য দিবালোকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন মীরসরাই পৌর এলাকাধীন অছি মিয়া ব্রীজ সংলগ্ন স্থানে মহামায়া খালের উপর পানি উন্নয়ন বোর্ড নির্মিত স্লুইসগেইট সড়কের পাউবো নির্মিত রাস্তার দুপাশে প্রায় অর্ধশত গাছ কেটে ফেলে প্রভাবশালী পৌর আওয়ামীলীগ নেতা। প্রাথমিক পর্যায়ে এলাকাবাসী ভয়ে নীরব থাকলে পরে প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে সকাল ১১টায় ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে আটক করে কিছু গাছ।

এলাকাবাসী জানায় এই এলাকার জলাবদ্ধতা ও পাহাড়ি ঢল নিরসন এবং শুস্ক মওসুমে কৃষিখাতে সেচ সুবিধার লক্ষে পানি উন্নয়ন বোর্ড মহামায়া সেচ প্রকল্পের অংশ হিসেবে ১৯৯৯ সালে উক্ত মহামায় খালের উপর উক্ত স্লুইস গেইট স্থাপন করে। তৎকালীন সময়ে সড়ক ও জনপথের মহাসড়কের অধিগ্রহনের অংশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধিগ্রহন অংশে ¯ুøইস গেইট অপারেটিং এর জন্য সেখানে সড়ক নির্মান করে পাউবো। তখনকার সময়ে সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য মীরসরাই উন্নয়ন সংসদ নামের স্থানীয় সামাজিক উন্নয়ন সংগঠন উক্ত সড়কের দুপাশে শতাধিক গাছ রোপন করে। গত ১৪ বছরে উক্ত মূল্যবান আকাশমনি, ইউক্লিক্টাস, মেহগনি গাছ গুলো উক্ত প্রকল্প এলাকায় ঘুরতে যাওয়া লোকজন ও পথচারিদের ছায়া দিয়ে আসছিল। কিন্তু স্থানীয় আওয়ামীলীলীগের একটি মহলের দৃষ্টি পড়ে এই বড়সড় হয়ে যাওয়া গাছগুলোর উপর। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানান স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলতাফ হোসেনের নেতৃত্বেই উক্ত গাছগুলো অপর এক ব্যবসায়ীর কাছে লক্ষাধিক টাকা মূল্যে বিক্রি করা হয়। উক্ত ব্যবসায়ী লোক দিয়ে গাছগুলো গতকাল বুধবার সকাল থেকে কেটে নিচ্ছিল। প্রায় অর্ধশত গাছ কেটে ফেলার পর এলাকার কিছু লোক স্থানীয় সংবাদকর্মী ও প্রশাসনকে অবহিত করলে এক পর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্তলে এসে হস্তক্ষেপ করে।
সরকারি গাছ এভাবে কেটে নিয়ে যাবার বিষয়ে এলাকাবাসী মেয়রকে ও অভিযোগ করেছিল বলে জানায়। এই বিষয়ে পৌর মেয়রের কাছে জানতে চাইলে পৌর মেয়র এম শাহজাহান বলেন আমি সকাল বেলা বিষয়টি এলাকাবাসী থেকে জেনে সরকারি গাছ বিক্রিকারী আলতাফ হোসেনকে মোবাইলে গাছ কাটা বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছি। কিন্তু আমার কথা সে আমলে নেয়নি হয়তো ।
এক পর্যায়ে সকাল ১১টায় মিরসরাই থানার কাছে অভিযোগ গেলে পুলিশদল নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসআই অলিউল কবির বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অবহিত করলে পাউবো কর্তনকারি গাছ গুলো আটকে রেখে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের পরামর্শ প্রদান করেন। এই বিষয়ে পাউবোর কর্মকর্তা প্রকৌশলী সতেজ দেওয়ান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাদের নির্মিত রাস্তায় ও প্রকল্পের কোন গাছ কাটা অন্যায়। বিষয়টি আমার উর্দ্ধতন মহলে পরবর্তি ব্যবস্থার জন্য জানিয়েছি। এই বিষয়ে মিরসরাই পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন কেউ ব্যক্তিগত ভাবে কোন অন্যায় করলে এর দায় নিবে না আওয়ামীলীগ। আবার এই বিষয়ে মিরসরাই পৌ আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি হুমায়ুন কবির এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য গৃহায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের দীর্ঘ প্রচেষ্টার উক্ত মহামায়া মহাপ্রকল্প। আওয়ামীলীগের সাইনবোর্ড দিয়ে কেউ সরকারি জমি দখলের চেষ্টা করলে কিংবা সরকারি গাছ কেটে নিয়ে গেলে এর দায়িত্ব শুধু দখলকারীদেরই নিতে হবে। এর জন্য আওয়ামীলীগ দায়ী থাকবে না।
এই বিষয়ে গাছ বিক্রিকারী আওয়ামীলীগ নেতা আলতাফ হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি এই বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকরা কেন তার ক্ষতি করার চেষ্টা করছে উল্টো দাবী করেন। সরকারের নির্মিত রাস্তার গাছ কেন আপনি বিক্রি করছেন এর উত্তর বার বার এড়িয়ে যান তিনি।
mirsori gach kata -001