Saturday, December 14Welcome khabarica24 Online

মীরসরাইতে কাসেম টিভি ও আসমানী টিভি চ্যানেলের দৌরাত্ম বৃদ্ধি

9800নিজস্ব প্রতিবেদক::মীরসরাইতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ইদানিং কিছু সাংবাদিক নামধারী মোবাইল, ক্যামেরা ও মাইক্রোফোনে কাসেম টিভি ও আসমানী টিভি, অনলাইন চ্যানেলের স্টিকার লাগিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি নিজেকে সাংবাদিক হিসেবে জাহির করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এসব প্রতারকদের অপতৎপরতা দেখা যাচ্ছে। সম্প্রতি জোরারগঞ্জ বিজয় মেলায় তাদের প্রতারনার শিকার হয়ে ভুক্তভোগীরা স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন। ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করে বলেন, বিভিন্ন চ্যানেলে তাদের সাক্ষৎকার প্রচার হবে বলে জানিয়ে ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন হাতে দাঁড়িয়ে যান সাক্ষাৎকার নেন। এছাড়া বিজয় মেলায় বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা সহ সামাজিক গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের মঞ্চে উঠিয়ে, ষ্টলে দাঁড় করিয়ে তাদের থেকে সাক্ষাৎকার নিতে দেখা যায়। এসব সাক্ষাৎকার, সংবাদ কোথায় দেখানো হবে প্রশ্ন করলে? তারা সঠিক কোনো উত্তর দিতে পারেন না বরং কৌশলে এড়িয়ে যায়। পরে সাক্ষাৎকার নেয়ার দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করে নিজেদেরকে সাংবাদিক হিসেবে জাহির করার একধরণের অপচেষ্টায় লিপ্ত হতে দেখা যায়। অনেক সাধারণ মানুষ ক্যামেরা, মাইক্রোফোন দেখে এদেরকে সাংবাদিক হিসেবে মনে করে। ফলে তারা এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত হয়ে উঠছে। এদের দৌরাত্মের কারনে স্থানীয় বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকার সাংবাদিকগণ বিপাকে পড়ছেন।

এই ব্যাপারে মীরসরাই প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, এসব ধান্দাবাজ ভুয়া সাংবাদিক নামধারীরা চ্যানেল, অনলাইন টিভির নামে প্রতারণা করে সাংবাদিক পেশার মত পবিত্র পেশাকে কলুষিত করছে। এসব ভন্ডদের ব্যাপারে নজর দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য তিনি প্রশাসনকে অনুরোধ জানান।

এ ব্যাপারে মীরসরাই প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান পলাশ বলেন, হাতে ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন থাকলে কেউ সাংবাদিক হয়না। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে চ্যানেলের নামে যারা সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করছে তারা দেশ ও সমাজের শত্রু। এদেরকে চিহ্নিত করে আইনের হাতে সোপর্দ করতে হবে। যাতে করে এসব অপসাংবাদিকদের কারণে মানুষের বিশ্বাস ভঙ্গ না হয় এবং তারা যাতে অপকর্ম করতে না পারে।