Wednesday, September 26Welcome khabarica24 Online

মিরসরাইয়ে প্রভাবশালীদের কবল থেকে এতিম কন্যার বাড়ি ভিটা রক্ষার দাবীতে সাংবাদিক সম্মেলন

নাছির উদ্দিন ঃ
মিরসরায়ে প্রভাবশালী আপন চাচাতো ভাইদের হাত থেকে এতিম কন্যার ঘর-বাড়ী ও ভিটেমাটি রক্ষার দাবীতে মিরসরাই প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে ক্ষতিগ্রস্থ আফছানা শারমিন (২২)। শনিবার দুপুর ১২ টায় মিরসরাই প্রেস ক্লাবে উপস্থিত হয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে তার অভিযোগ তুলে ধরেন। এসময় তার স্বামী, শশুর-শাশুড়ি ও দেবর উপস্থিত ছিলেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, তিনি মিরসরাই উপজেলার ৭নং কাঁটাছরা ইউনিয়নের পূর্ব কাঁটাছরা গ্রামের মৃত ফয়েজ উল্লাহ ও মাতা কামরুন জাহান দম্পত্তির একমাত্র কন্যা। গত ২ বছর পূর্বে তার পতিা মারা যান। এর ১১ মাস পরে তার মাও মৃত্যুবরণ করেন। বর্তমানে তিনি স্বামীরসাথে বসবাস করছেন। সম্প্রতি তিনি মায়ের মৃত্যুর পর একা হয়ে যাওয়ায় স্বামীরসাথে চট্টগ্রামে অবস্থান করছেন। যাওয়ার সময় গ্রামের বাড়িতে তালা দিয়ে যান। এরপর গত ১১ নভেম্বর বাড়ীতে এলে ঘরে তালা দেখতে পান এবং তাকে ঘরে ঢুকতে দিচ্ছেনা বিবাদী চাচী, চাচাতো ভাই ও তাদের সহযোগিরা যথাক্রমে জাহেদ হোসেন (২৫), মমিনুল ইসলাম (৩১), কামাল হোসেন (৩৫), তাহেরুন্নেছা (৫০) ও লায়লা বেগম (২৬)। ঘরে ঢুকতে চাইলে তার উপর হামলা করে। হামলাকারীদের লাঠির আঘাতে আফসানা ও তার স্বামীকে আহত হয়।
আবার এরপর গত ৩০ মার্চ স্বামী, শ্বশুরসহ আত্মীয়স্বজন নিয়ে ঘরে ঢুকতে গেলে সেখানেও উল্লেখিত ব্যক্তিদেরর লোকজন বাধা প্রদান করে। এদিকে মোমিনুল ইসলাম বাড়ীটি চাচাতো ভাইদের দখল করিয়ে দেবার জন্য মোটা অংকের টাকা নিয়ে মিথ্যা মামলাসমূহ পরিচালনা করছে। কয়েকটি মামলা ইতিমধ্যে আদালতে খারিজও করে দিয়েছে। এবিষয়ে আমি জোরারগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করি। এর প্রেক্ষিতে জোরারগঞ্জ থানার ওসি জাহিদুল কবির ও তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আলমগীর আইনাগত সহায়তা করার আশ্বাস প্রদান করেন।
আফসানা আরো বলেন, ‘আমার চাচাতো ভাই নামের অপরাধিগণ আমার পিতার রেখে যাওয়া ঘর-বাড়িসহ আমার সকল সম্পদ, পুরাতন বাড়ীতে রেখে যাওয়া সম্পদ, প্রায় দেড় একর কৃষিজমিসহ সকল সম্পদ দখল করার চেষ্টায় লিপ্ত। উক্ত ব্যক্তিগণ আমার পিতার জীবদ্দশায়ও আমার সম্পদ দখল করার জন্য আমাকে বিয়ে করার চেষ্টা করে। আমার পিতা তাদের এসব উদ্দেশ্য বুঝতে পেরে জীবদ্দশায় তার সকল সম্পদ আমার নামে রেজিস্ট্রিমুলে হস্তান্তর করে যান। আমার নিরাপত্তার কথা ভেবেই আমার জন্য আলাদা বাড়ি করে সেখানে আমাকে রেখে যান। বর্তমানে বিবাদীগণ নিজেদের ঘরে তালা দিয়ে আমার ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘর দখল করে নিয়েছে। শুধু তাই নয় ওরা আমার সম্পদ দখল করার জন্য আমাকে পালিত কন্যা বলেও এলাকায় অপপ্রচার চালাচ্ছে। আফসানা বলেন, আপনাদের লেখনির মাধ্যমে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় আমি আমার পিতা মাতার স্মৃতিময় বাড়িটি ফিরে পেতে চাই। এই ঠিকানাই আমার একমাত্র মাথা গোজার সহায় ও অবলম্বন । আমি প্রধানমন্ত্রী এবং গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন জানাই ন্যায্য বিচারের। আদালত ও প্রশাসনের কাছে আমার পিতা-মাতার রেখে যাওয়া ঠিকানা ফিরে পাবার আবেদন জানাই। জোরারগঞ্জ থানার ওসি জাহিদুল কবির বলেন, উক্ত শারমিনের বিষয়টি আমরা ও মানবিকতার বিবেচনায় সকল প্রকার তদন্ত কার্যক্রম ও ঘটনার সুরাহার চেষ্টা করে যাচ্ছি। আশা করছি খুব শীঘ্রই সকল সমস্যার অবসান করে বিষয়টি আমরা সমাধান করতে সক্ষম হবো। বিবাদীদের কাছে জানতে চাইলে তারা সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি। এই বিষয়ে স্থানীয় ৭ নং কাটাছরা ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম হুমায়ুন বলেন, বিষয়টি নিয়ে বিবাদ দীর্ঘদিন ধরে চলছে, থানা প্রশাসন জোরালো ভূমিকা রাখলে এর সমাধান সহজ হবে।