শনিবার, ৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মিরসরাইয়ে গৃহবধূ গণধর্ষনের শিকার

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে জোরারগঞ্জ থানাধীন ১নং করেরহাট এলাকায় শশুরবাড়ী যাওয়ার পথে গৃহবধূ রাহেনা আক্তার সুমি (১৯) গণধর্ষনের শিকার হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাত ১১টা ৩০মিনিটের সময়, উপজেলার ২নং হিঙ্গুলী ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে। রাহেনা করেরহাট ইউনিয়নের ভুট্টো মিয়া প্রকাশ রবির স্ত্রী বলে জানা গেছ। থানায় প্রদান করা অভিযোগ সুত্রে যানা যায়, গত শনিবার রাত ৮টার সময় রাহেনা বাবার বাড়ী ফেনী থেকে বারইয়ারহাট এসে সিএনজি যোগে করেরহাট এলাকায় শশুরবাড়ী যাওয়ার পথে স্থানীয় আজম নগর এলাকায় গেলে পথি মধ্যে স্থানীয় তিন বখাটে, পূর্ব হিঙ্গুলী গ্রামের মৃত জাকির হোসেনের ছেলে নুর হোসেন ওরফে নুরাইয়া (২৬), একই গ্রামের শাহাব উদ্দিনের ছেলে আশেক (১৯) এবং আজম নগর গ্রামের ছগির আহম্মদের ছেলে মজিদ (২০), সিএনজির গতিরোধ করে জোরপূর্বক সিএনজিতে ওঠে রাহেনাকে অপহরণ করে হিঙ্গুলী ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের গভীর জঙ্গলে দুলাছরি এলাকায় নিয়ে গিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষন করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিম রাহেনাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাহেনার দেওয়া তথ্যেমতে এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই রাতেই নুর হোসেন এবং আশেককে পুলিশ গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। এব্যপারে ভিকটিম রাহেনা বাদী হয়ে জোরারগঞ্জ থানায় তিনজনকে আসামী করে একটি ধর্ষন মামলা নং (২৫) দায়ের করেন। এব্যপারে জানতে চাইলে ২নং হিঙ্গুলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইফতেখার উদ্দিন পিন্টু বলেন, বিষয়টি আমি সকালে লোকমুখে শুনেছি বর্তমানে এ বিষয়ে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে। এব্যপারে মামালার তদন্ত কর্মকর্তা জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম লিয়াকত আলী বলেন, ধর্ষনের ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ভিকটিম এবং ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে আটক করে থানায় নিয়ে এসছে, ভিকটিম বাদীহয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে বর্তমানে বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।