Thursday, November 15Welcome khabarica24 Online

মহামায়ায় পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়

ইমাম হোসেনঃ  ‘সারা বছর চাকরি নিয়ে ব্যস্ত থাকি তাই ঈদের ছুটিতে যদি পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বেড়াতে না পারি তাহলে ঈদের আনন্দটা পূর্ণ হয় না। তাই পরিবারের সকল সদস্যকে নিয়ে ছুটে এসেছি মহামায়াতে। এবারই আমার প্রথম আসা হল এই প্রকল্পে। এসেই আফসোস হল আরো আগে কেন এলাম না এখানে। এত সুন্দর মহামায়া! সত্যি আমি দেখে মুগ্ধ হয়েছি। মীরসরাইয়ে এত চমৎকার পর্যটন স্পট। এ প্রতিবেদকের সাথে কথাগুলো বলছিলেন চট্টগ্রাম কনেলহাট এলাকা বাসিন্দা থেকে আসা পর্যটক ইসমাইল হোসেন ‘ এ কথা শুধু ইসমাইল নয় মহামায়াতে আসা সকল পর্যটকের। প্রিয়জন নিয়ে অনেকেই হারিয়ে গেছে মিষ্টি মধুর এই লেকে। রিমঝিম ঝর্ণাতে চলছে দুষ্ট ছেলেদের অন্যরকম লাফালাফি। চার দেয়ালে বন্দি মন খানিকটা ছুটি পেয়ে ছটফট করছে একটু আলো-বাতাসের ছোঁয়া পেতে। কতদিন বেড়ানো হয় না। ঈদের ছুটি সেই সুযোগটা করে দিয়েছে। আর ঘরে বসে থাকা যায় না। প্রকৃতির অতি কাছাকাছি যে যেতেই হবে। তাই সবাই ছুটে এসেছেন মহামায়াতে। ঈদের দ্বিতীয় দিন সকাল থেকে বৃষ্টির কারণে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারেনি। তাই প্রিয়জন, পরিবার পরিজনকে নিয়ে বাহিরে বেড়াতে গিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগের সুয়োগও হয়নি।

কিন্তু ঈদের পর দিন দুপুরের পর বৃষ্টি বন্ধ হলে সৌন্দর্য পিয়াসীদের পদচারণায় ভরে উঠে মীরসরাইয়ের পর্যটন মহামায়া। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কৃত্রিম লেক মহামায়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ সালের ডিসেম্বর মাসে উদ্বোধনের পর থেকে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসছেন পর্যটকরা। সারা বছর পর্যটকদের আগমন থাকলেও ঈদের সময় পর্যটকদের ভিড় বাড়ে।

সরেজমিনে মহামায়ায় গিয়ে দেখা গেছে, পর্যটন এলাকায় লেকের নীলাভ জলরাশিতে দাপাদাপি, ডিঙ্গী, ইঞ্জিন চালিত বোটে লেকের অপার দৃশ্য দর্শন, হৈচৈ আর ছুটোছুটিতে লেক এলাকা উৎসব মঞ্চে পরিণত হয়েছে। কেউ কেউ আবার নিজেদের শরীরটাকে ভিজিয়ে নিচ্ছেন মহামায়ার লেকের পানিতে। সব বয়সের নারী পুরুষ শিশু, তরুণ তরুণী এখানে একাত্ম হয়েছেন আনন্দ উৎসবে। বিগত দিনের ক্লান্তি আর অবসাদ বিলীন হয়েছে লেকের অপার সৌন্দর্যের কাছে। এবার পর্যটকদের ভিড় আগের বছরের তুলনায় অনেক বেশি লক্ষ্য করা গেছে। ঈদের ছুটিতে গ্রামে বেড়াতে আসা প্রতিটি মানুষই আসছেন প্রকৃতি কন্যা মহামায়ার অপরূপ সৌন্দর্য অবলোকন করতে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যিালয় থেকে আসা শিক্ষার্থী লাভলী সোলতানা ও খতিজা বেগম জানান, মহামায়া সত্যি বাংলাদেশের একটি অন্যতম দর্শনীয় স্থান। এখানে না এলে কখনো বোঝা যাবে না মহামায়ার রূপ।
ফেনী থেকে আসা আলী হোসেন বলেন, মহামায়া খুবই সুন্দর একটি এলাকা। তাই পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদে ঘুরতে এসেছি।