রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

মহাজোট সরকারের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছেন

cabnet

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

মহাজোট সরকারের বর্তমান মেয়াদ পুরনের পর নির্বাচনকালীন ‘সর্বদলীয়’ সরকার গঠনের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে নিজ নিজ পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর হাতে  তারিখ বিহীন পদত্যাগপত্র তুলে দেন মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা। গত ৪ নভেম্বর মন্ত্রিসভার বৈঠকে সাত দিনের মধ্যে মন্ত্রীদের পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই নির্দেশ অনুযায়ী পদত্যাগপত্র লিখে তাতে সই করে রেখেছিলেন মন্ত্রীরা। নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকারের মন্ত্রিসভায় যারা সদস্য হবেন, শুধু তাদের পদত্যাগ কার্যকর হবে না। মন্ত্রীদের পদত্যাগের পর তাদের কর্মকান্ডও সরকারি সুবিধা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। সংবিধান অনুযায়ী মন্ত্রীরা পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পরই সেটি স্বাভাবিকভাবে কার্যকর হয়। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে যেদিন নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হবে, ওই দিনই পদত্যাগপত্র গৃহীত হবে। এব্যাপারে সোমবার মন্ত্রী সভা বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব সাংবাদিকদের জানান, মন্ত্রিসভা পদত্যাগ নয়, পুনর্গঠন হচ্ছে।আগামী ২১ নভেম্বরের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠিত হতে পারে। মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা পদত্যাগপত্র জমা দিলেও মন্ত্রী পদমর্যাদায় নিযুক্ত প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারা এখনও পদত্যাগপত্র জমা দেননি। কিংবা তাদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতিও দেওয়া হয়নি। এছাড়াও সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের পদত্যাগপত্র দেওয়াতে মহাজোট সরকারের মন্ত্রিসভা ভেঙে দেওয়া হচ্ছে না বরং পুনর্গঠিত করা হচ্ছে। আর সেই পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রিসভার সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।নির্বাচনকালীন ‘সর্বদলীয়’ সরকার গঠনের লক্ষ্যে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত সব মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন বলে বৈঠক শেষে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। তিনি অবশ্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী যতক্ষণ না পদত্যাগপত্র গ্রহণ করবেন, ততক্ষণ পর্যন্ত মন্ত্রীরা দাফতরিক ও নির্বাহী দায়িত্ব পালন করতে পারবেন। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৪ নভেম্বর শ্রীলংকা সফরে যাচ্ছেন। ১৭ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পরই ‘সর্বদলীয় অন্তর্বর্তীকালীন সরকার’ গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হবে।

Leave a Reply