Saturday, November 17Welcome khabarica24 Online

ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোয় বাংলাদেশের নারীদের সাফল্য অব্যাহত

barb20170310002809

খবরিকা ডেস্ক: বিগত বছরের ন্যায় এবারও সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখেছেন ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশের (বিএটিবি) নারী কর্মীরা। ‘অ্যাস্পায়ারিং ওমেন লিডার’ ক্যাটাগরিতে কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার ফারহানা চৌধুরী এবং ‘প্রগেসিভ ওমেন লিডার’ ক্যাটাগরিতে কোম্পানির এইচআর বিজনেস পার্টনার আদ্রিতা দত্ত পুরস্কার লাভ করেছেন।

সম্প্রতি ব্রান্ড ফোরামের আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে তাদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

চ্যালেঞ্জিং এবং বৈচিত্র্যময় বিপণন খাতে সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের স্বীকৃতি হিসেবে সম্মানিত হন ফারহানা চৌধুরী। তিনি বিএটিবির এরিয়া ম্যানেজার পুলে একমাত্র নারী কর্মী। সাড়ে তিন বছর আগে তিনি টেরিটোরি অফিসার হিসেবে কোম্পানিতে যোগদান করেন। এই অল্প সময়ে পরিশ্রম ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে তিনি আজকের এ অবস্থানে পৌঁছেছেন।

নিজের এমন সম্মান অর্জনের দিনে নারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, নিজের ক্যারিয়ারের জন্য নারীদের কোনো কিছুর সঙ্গে আপস করা উচিত না। শিক্ষা ও স্বপ্ন থাকলে এগিয়ে যাওয়া উচিত।

এক বছর জাপানে অ্যাসাইনমেন্ট শেষ করে দেশে ফেরা কোম্পানির মার্কেটিং বিজনেস পার্টনার আদ্রিতা দত্ত তার এমন সাফল্য সম্পর্কে বলেন, পেশাগত জীবনে ভালো করতে হলে আমাদের সফলভাবে অগ্রাধিকারমূলক কাজের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে হবে।

এ বিষয়ে বিএটি বাংলাদেশের মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান রুমানা রহমান বলেন, বিএটি বাংলাদেশ জেন্ডার ডাইভারসিটির বিষয়টি সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়। প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোর সবপর্যায়ে নারীর নিয়োগ নিশ্চিত করা হয়। ফারহানা ও আদ্রিতার মতো অনেকেই তাদের নিজ নিজ দায়িত্বে সফলতার সঙ্গে দ্বায়িত্ব পালন করে উদাহরণ তৈরি করেছে। তাদের এই সাফল্য শুধুমাত্র নারীদের নয়, বিএটি বাংলাদেশে কর্মরত সব কর্মীদের উৎসাহিত করবে।

২০১৫ সালে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ সেরা নারীবান্ধব প্রতিষ্ঠানের পুরস্কার পায়। এছাড়া ‘ইন্সপায়ারিং ওমেন’ ক্যাটাগরিতে রুমানা রহমান, ‘প্রগেসিং ওমেন লিডার’ ক্যাটাগরিতে আমান মুস্তাফিজ ও ফারাহ জাবিন, ‘অ্যাস্পায়ারিং ওমেন’ ক্যাটাগরিতে সাঞ্জানা জেরিন এ পুরস্কার লাভ করেন।