শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

বাংলাদেশকে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে দেখছেন মুশফিক

image_177720.7
মুশফিক রহিম এই সেদিনও ছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক। এখন নেতৃত্বে মাশরাফি বিন মুর্তোজা। তাই অধিনায়কত্ব নিয়ে আর ভাবেন না মুশফিক। এখন শুধু ভাবেন কিভাবে মাশরাফিকে সহায়তা করা যায়। মঙ্গলবার এমন কথা বলার পাশপাশি বিশ্বকাপে দল ও নিজের টার্গেট নিয়েও কথা বললেন। তার আশা, বাংলাদেশ দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলবে। মুশফিকের ভাষায়, “আমাদের অনেক সামর্থ আছে। দলে এখন অনেক পারফরমার। যদি টিম হিসেবে দেখেন যে ৫জন এক সাথে পারফরম করছে তাহলে দৃশ্যপট বদলে যাবে। তখন দ্বিতীয় রাউন্ড কেন, অনেক দূরই যেতে পারবো। দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলতে পারবো এমন আশা আছে। তবে আমাদের প্রথম ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ। ওটা ভালো করতে পারলে পরেরগুলো বেশ ভালো হবে।অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনকে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বানিয়ে দিচ্ছেন কেউ কেউ। কিন্তু সেই দলের মানুষ নন মুশফিক। “অনেকে বলছে আমরা হয়তো ভালো খেলতে পারবো না। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমি ফিল করি বাংলাদেশের ওরকম কন্ডিশনে ভালো খেলা সম্ভব-” বলেছেন মুশফিক। তবে তিনিও কন্ডিশনের চিন্তার বাইরে নন। বলেছেন, “কন্ডিশন একটা বড় জায়গা। কারণ যেখানে খেলতে যাবেন সেখানকার পিচ, আবহাওয়া ও সবকিছু বুঝে খেলতে হবে। আমরা অনেক হার্ড ওয়ার্ক করছি। এখন শুধু করে দেখানোর সময়। এশিয়ার বাইরের দেশগুলো স্পিনে দূর্বল। আমাদের জন্য যা প্লাস পয়েন্ট। পেস বোলিং নিয়ে আরেকটু কাজ করতে হবে। বিশেষ করে শেষের দিকের বোলিং। এভাবে ভালো করতে পারলে অস্ট্রেলিয়ার সাথেও ভালো করা সম্ভব।বাংলাদেশ দলের পরিকল্পনা কি হওয়া উচিৎ বিশ্বকাপে? এমন প্রশ্নও আসে। কারণ, পরিকল্পনা কাজে লাগাতে পারলেই কেবল সাফল্য আসে। এই প্রশ্নে মুশফিক বললেন, “এই সময়ের খেলা দেখলে দেখবেন স্পিনাররা ভালো করছে। আমাদের শক্তি স্পিন। আমাদের পরিকল্পনা আছে স্পিন দিয়ে ওপেন করা। এখনো দুই সপ্তা সময় বাকি। ওখানেও অনেক পরিকল্পনার সুযোগ পাওয়া যাবে। আমরা ওখানে দুই সপ্তা অনুশীলন করতে পারবো। এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট।দলের কথা বলতে বলতে মুশফিকের নিজের পরিকল্পনার কথা আসে। তারও কিছু টার্গেট আছে। আছে বিশ্বকাপের মতো সর্বোচ্চ আসরে ভালো কিছু করার। সেটাই বলছিলেন মুশফিক, “টার্গেট তো সবার থাকে। ভালো খেলা, ধারাবাহিক থাকা। ১০০ করা। আমারও সেরকম আছে। সুযোগ পেলেই তার সর্বোচ্চ ব্যবহারের চেষ্টা করব। চেষ্টা করবো যাতে ম্যাচের সেরা হতে পারি, আমার দল যেন তাতে জেতে। অনেক স্কোর করলেন, দল জিতল না। তাহলে তার কোনও দাম নেই। চেষ্টা থাকবে দল হিসেবে কিছু করার। ছয়টা ম্যাচ পাবো। চেষ্টা করবো নিজের সর্বোচ্চটা দিতে।