Saturday, December 14Welcome khabarica24 Online

ফেইসবুক বন্ধ প্রশ্নই আসে না : তারানা

1-300x160
খবরিকা ডেক্সঃ
ফেইসবুক বন্ধ করা সমীচীন হবে না বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। রাতে ফেইসবুক বন্ধ করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের চাওয়া নিয়ে তুমুল আলোচনার মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এসে তিনি বলেন, বিভ্রান্তি দূর করতে সুস্পষ্টভাবে বলে দিতে চাই, ফেইসবুক বন্ধ হচ্ছে না। খবর বিডিনিউজের।

ফেইসবুক বন্ধ করার প্রশ্নই উঠে না। বিষয়টি বিবেচিতও হয়নি। দেশের তরুণদের ‘মঙ্গলের স্বার্থে’ মধ্যরাত থেকে ছয় ঘণ্টা ফেইসবুক বন্ধ রাখা যায় কি না, সে বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে সম্প্রতি টেলিযোগাযোগ বিভাগে চিঠি আসে। টেলিযোগাযোগ বিভাগ তখন মতামত জানতে চায় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিটিআরসির কাছে। বিটিআরসি তখন জানায়, কারিগরি সীমাবদ্ধতার কারণে নির্দিষ্ট বয়সীদের কারণে শুধু শিক্ষার্থীদের জন্য নির্দিষ্ট কোনো সময় ফেইসবুক বন্ধ করা সম্ভবপর নয়। ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যমটির উপর কড়াকড়ির পরিকল্পনার খবরটি সোমবার দিনভর ছিল আলোচনায়। ‘রাতে ফেইসবুক বন্ধ থাকছে’ বলে কোনো কোনো সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার দুপুরে টেলিযোগাযোগ বিভাগ থেকে জানানো হয়, এনিয়ে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসে এবং জঙ্গি তৎপরতায় ফেইসবুকের ব্যবহার আলোচনায় উঠে আসার প্রেক্ষাপটে গতবছর জেলা প্রশাসক সম্মেলনে এই সংক্রান্ত প্রস্তাবটি এসেছিল। জেলা প্রশাসক সম্মেলনের সেই প্রস্তাবের ভিত্তিতেই গত ২৭ মার্চ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে টেলিযোগাযোগ বিভাগে চিঠি যায়। জেলা প্রশাসক সম্মেলনে এই সংক্রান্ত প্রস্তাব পাঠানোকে ‘রুটিন কাজ’ উল্লেখ করে তারানা হালিম বলেন, এটি ছিল আনুষ্ঠানিকতার অংশ। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে আগেই মৌখিকভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল ফেইসবুক বন্ধ করা সম্ভব নয়। তিনি বলেন, সরকার এমন কিছু করবে না, যা ডিজিটাল বাংলাদেশের মূল চেতনাকে কোনোভাবে আঘাত করে বা আহত করে। বাংলাদেশে ফেইসবুকের নানামুখী ব্যবহারের বিষয়টি তুলে ধরে তারানা হালিম বলেন, বাংলাদেশে ফেইসবুক শুধু একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবেই ব্যবহৃত হচ্ছে না, সাধারণ জনগণ বিশেষ করে নারীরা অনলাইনে ব্যবসা করে অর্থ উপাজন করছে। বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ-আমেরিকায় যোগাযোগের জন্য রাতের সময়টি সুবিধাজনক বলে সেই সময় অনেকে এই মাধ্যমে ব্যবসা সংক্রান্ত কাজ করেন। ১৬ কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশে আড়াই কোটি ফেইসবুক ব্যবহার করছেন বলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমরা আইটিইউতে (আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ সংস্থা) অনুরোধ করেছি, তোমরা বাংলাদেশে লিটারেসি রেট যখন দেখবে ফেইসবুক ইউজারস যারা তাদেরকে লিটারেট হিসেবে গণ্য করবে। কারণ আমাদের অনেক নিরক্ষর মানুষ নিজের নাম টাইপ করে যখন ফেইসবুকে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে, তখন মোবাইল নম্বর টাইপ করতে পারে। আমরা ওদের অনুরোধ করেছি লিটারেসির সংজ্ঞাটা পাল্টাতে। ফেইসবুকের বিরামহীন ব্যবহারের নেতিবাচক দিকটি স্বীকার করে বিটিআরসি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সচেতন করার উদ্যোগ নেওয়ার সুপারিশ করেছে বিটিআরসি। ফেইসবুক ব্যবহারে ‘সামাজিক সচেতনতায় ক্যাম্পেইন’ করা হবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ফেইসবুক ছাত্র-ছাত্রীদের ক্ষেত্রে অভিভাবক কর্তৃক পেরেন্টাল কন্ট্রোলসহ বিভিন্ন সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসি ফিচার ব্যবহার করা যেতে পারে। ফেইসবুক সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে গণমাধ্যমগুলোকে আরও সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, এসব বিষয়ে যেন বিভ্রান্ত না হয় সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। দেখা যাচ্ছে তিলও যেখানে নেই সেখানে তাল হয়ে গেছে।