রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

পঁচাত্তর সালের কায়দায় সংবিধান লঙ্ঘন করলো আওয়ামী লীগ : মির্জা ফখরুল

নবম সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই দশম সংসদের নির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহণ করার ঘটনায় সংবিধানের লঙ্ঘন হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, “১৯৭৫ সালের জানুয়ারি মাসে যারা একদলীয় স্বৈরশাসন বাকশাল ব্যবস্থা অনুমোদন করেছিল, ৩৫ বছর পর আজ তাদের উত্তরসূরিরা সংসদ ভবনেই স্বৈরাচারী কায়দায় রাষ্ট্রীয় সংবিধান অগ্রাহ্য করেছে।তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী বৃহস্পতিবার যাদের শপথ গ্রহণের কোনো সুযোগ ছিল না, তাদের শপথ পড়িয়ে স্পিকারও সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন তিনি।মির্জা ফখরুল বলেন, বিশাল সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে নিজেদের ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার হীন লক্ষ্য পূরণের জন্য সরকার যে সংবিধানকে যথেচ্ছ কাটাছেঁড়া করে জনগণের ওপর চাপিয়ে দিয়েছে, তাও আজ অমান্য ও অগ্রাহ্য করা হলো।সংবিধানের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, সংসদের মেয়াদকালে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে যাতে নির্বাচনী এলাকায় দুজন করে নির্বাচিত সদস্য থাকার মতো অঘটন না ঘটে, সে জন্য মেয়াদ সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত সংসদ সদস্য হিসেবে কার্যভার গ্রহণ না করার কথা বলা হয়েছে সংবিধানে।
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, ৫ জানুয়ারির তথাকথিত নির্বাচনে নির্বাচিত বলে কথিত কোনো ব্যক্তি ২৪ জানুয়ারির আগে কার্যভার নিতে পারেন না। অথচ আজ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণের মাধ্যমে তারা কার্যভার গ্রহণ করেছেন। এটা সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।মির্জা ফখরুল দাবি করেন, যারা শপথ নিয়েছেন, তারাও সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন। তিনি বলেন, জনগণের ভোটাধিকার হরণ করে এবং ভোটবিহীন কারচুপির মাধ্যমে যারা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন, তারা শুধু পবিত্র সংসদ ও গণতান্ত্রকেই কলঙ্কিত করেননি, বরং তারা জনগণের সঙ্গে চরম বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। সময় আসবে এবং জনগণ এই প্রহসনের জবাব দেবে।

Leave a Reply