Sunday, May 27Welcome khabarica24 Online

নিজামপুরে নাচে গানে কবিতায় হৈমন্তি সাহিত্য আসর : স্বজন নিজামপুর ইউনিট গঠন

মাহবুব পলাশ :: ঝাউ গাছের দোল খাওয়া ঢালের ফাঁকে পূর্বদিকের সারি সারি ঢেউ খেলানো নীলিমা ছোঁয়ানো পাহাড়। স্বচ্ছ আকাশের পুঞ্জ পুঞ্জ মেঘমালার অপরুপ প্রকৃতির মেলায় নিজামপুর কলেজের যুগান্তর স্বজন বন্ধুরা নাচে গানে কবিতায় একাকার হয়ে হারিয়ে গিয়েছিল হৈমন্তি সাহিত্য আসরে। কবিতা, গান আর শৈল্পিক নৃত্যের তালে পুরো বেলাটুকুন পুরো প্রকৃতি ও যেন বিমুগ্ধতায় বিমোহিত হয়েছিল সেদিন।

সোমবার ( ২৭ নভেম্বর) নিজামপুর কলেজের সেমিনার কক্ষে অধ্যাপিকা সারওয়াত নাজনীন এর সভাপতিত্বে, কবি ও সাংবাদিক মাহবুব পলাশের সঞ্চালনায় উক্ত সাহিত্য আসরে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু সহ ৩ টি মহাকাব্যের রচয়িতা মহাকবি কাইয়ুম নিজামী। উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন। বিশেষ অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ডাঃ জামশেদ আলম।

কবি নজরুলের ‘দাও সৌর্য্য দাও ধৈর্য্য হে উদার নাথ, দাও দাও’ প্রাণ দিয়ে শুরু হওয়া গানের পর একে একে আবৃত্তি করে পূজা কর্মকার, ইদুল ফয়সাল, রোকসানা আক্তার, দেবাশীষ শীল, তানজিনা আক্তার, নাসরিন আক্তার, মাহবুবা খানম স্বর্ণা, নিশান, মেহরাব, নাঈমুল হোসেন, লিংকন দে ও এম এ মান্নান। গান পরিবেশন করে তমালিকা দাস, কেয়া আচার্য্য, কান্তা চক্রবর্তি, তৌহিদ সাদেক, শাখাওয়াত হোসেন, ইয়াছিন আরাফাত, ম্মৃতা সেন গুপ্তা, সামিহা জাহান, প্রিয়া পাল ও আরিফ। অতিথী শিল্পী হিসেবে গান পরিবেশন করে অহনা দেবী। প্রয়াত নাট্যকার দুলাল জুবাইদ স্মরণে কবি নজরুলের ‘জ্বীনের বাদশা’ গল্প থেকে নাটকের নাট্যাংশ পরিবেশন করে শরিফ উদ্দিন শিবলু।

সাহিত্য সভায় সকলকে বিমুগ্ধতায় ভরিয়ে দেয় ইতি বড়–য়ার প্রাণ কাড়া সুরের মূর্ছনায় ‘ওকি গাড়িয়াল ভাই’ ও লালন ‘খাঁচার ভেতর অচিন পাখি’। দেশের গান গায় স্বজন উপজেলা সম্পাদক রিপন গোপ পিন্টু। কবিতা আবৃত্তি করে সৌদি আরব প্রবাসী কবি নুর উন নবী ও কবিতা মঞ্চ দুবাই শাখার সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য জাফর উদ্দিন ভূঞা।

অনুষ্ঠানের মধ্যাহ্র পর্বে মিরসরাই এর গর্বিত সন্তান হিসেবে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনাকে নিয়ে রচিত কয়েকটি অনবদ্য সেরা মহাকাব্যের জন্য মহাকবি কাইয়ুম নিজামীকে ‘ বিনম্র শ্রদ্ধা’ সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়।

হেমন্ত নিয়ে অনেক নানান পংক্তিমালা সহ সাহিত্য আসরের নানান বিমুগ্ধতার কথা বলেন অতিথীগন যথাক্রমে অধ্যাপিকা সুরাইয়া আনজুমান, কবি ও সাংবাদিক শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, স্বজন সমাবেশের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক রাজিব মজুমদার, অধ্যাপক জসিম উদ্দিন, প্রধান শিক্ষক উত্তম বড়ুয়া, আনোয়ারুল হক নিজামী, ইমাম হোসাইন, কামরুল ইসলাম, সানোয়ার ইসলাম রনি, তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ।

সাহিত্য আসরে স্বরচিত হেমন্ত কবিতা, আবৃত্তি ও গানের জন্য পুরস্কার লাভ করে স্মৃতা, তমালিকা, কান্তা, লিংকন, নিশান, তানজিলা, ঈদুল, মাহবুবা, রোকসানা।

অনুষ্ঠানের শেষের দিকের বাঁধনের পরিবেশনায় ‘ নাও উড়াইয়া দে’ ও স্মৃতা’র শৈল্পিক নৃত্য সবাইকে বিমোহিত করে। সবশেষে সভাপতি সারওয়াত নাজনিন এর আবৃত্তিতে বেগম সুফিয়া কামালের কবিতা ‘হেমন্ত’ এর বিমুগ্ধতা দিয়েই ইতি হয় হৈমন্তি সাহিত্য সভা। যন্ত্র সহযোগিতায় ছিলেন দিবাকর সহ সহযোগীরা।

নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ স্বজন শাখা ঃ উক্ত সাহিত্য সভায় সর্বসম্মতিক্রমে স্বজন সমাবেশ নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা কমিটি ঘোষনা করেন যুগান্তর প্রতিনিধি মাহবুব পলাশ। ঘোষিত কমিটি যথাক্রমে সভাপতি সারওয়াত নাজনিন। সহ সভাপতি সুরাইয়া আরজুমান্দ সাফা। সাধারন সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন রিপন। যুগ্ম সম্পাদক স্মৃতা সেন গুপ্তা, কান্তা চক্রবর্তি ও তমালিকা দাশ। সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফ আদনান। এছাড়া সাহিত্য আসরে উপস্থিত ১৭ সদস্য সহ ২৫ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী তাঁর বক্তব্যে ইতি বড়ুয়া সহ নিজামপুর স্বজন ইউনিটের সকলকে নিয়ে একটি মিউজিক ভিডিও তৈরী করার ঘোষনা দেন। এছাড়া তিনি সাহিত্য সংস্কৃতি অংগন নিয়ে তাঁর বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা ব্যক্ত করেন। তিনি শিক্ষার্থীদের পড়ালিখার পাশাপাশি সংস্কৃতিতে উদ্বুদ্ধ হবার নানা প্রেরণা প্রদান করেন।