মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

ধর্ষিতার স্বাস্থ্য পরীক্ষায় পুরুষ চিকিৎসক নয়

highcourt_90421

ধর্ষণের শিকার নারীর স্বাস্থ্য ও বয়স নির্ধারণের পরীক্ষায় পুরুষ চিকিৎসকদের অংশ না নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে এ কথা বলেছেন আদালত। রোববার এ সংক্রান্ত রুলের নিষ্পত্তি করে বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি এ বি এম আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। নির্দেশ অনুসারে আদালতে হাজির হলে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক দীন মোহাম্মদ নুরুল হককে তাকে এ কথা বলেন আদালত। একই সঙ্গে অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত।
সারা দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে ধর্ষিতার স্বাস্থ্য পরীক্ষায় নারী চিকিৎসক, নার্স ও এমএলএসএস নিয়োগ বিষয়ে আদালতের আদেশ কেন মানা হয়নি- তা জানতে চেয়ে গত ২ এপ্রিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকে তলব করেন আদালত। এ আদেশের ভিত্তিতে রোববার আদালতে হাজির হয়ে হাজির হয়ে দুঃখ প্রকাশ করার পরে তাকে আদালত অবমাননার দায় থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এ বিষয়ে দায়ের করা রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিত রায়।
আদালতের আদেশ অনুযায়ী রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হাজির হলে আদালত ডিজিকে উদ্দেশ করে বলেন, আমরা আপনাদের ডাকতে চাই না। আপনারাও ব্যস্ত মানুষ। জবাবে ডিজি বলেন, আমি নতুন নিয়োগ পেয়েছি। মাত্র একমাস হলো। এ সময় ডিজির পক্ষে আইনজীবী শ ম রেজাউল করিম বলেন, আদালতের আদেশ মোতাবেক নারী ডাক্তার নিয়োগ দেয়া হয়েছে।আদালত এ সময় বলেন, এত ডাক্তার পেলেন কোথায়। জবাবে রেজাউল করিম বলেন, নারী ডাক্তার নিয়োগ দেয়া হয়েছে এবং আদালতের আদেশ বাস্তবায়নের সব অগ্রগিত প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। এসব তথ্য রেজিস্ট্রার দপ্তরে জমা দেয়া হয়েছে। আদালতে না দেয়ায় আমাদের ভুল হয়ে গেছে। এ জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। এরপর আদালত ডিজিকে অব্যাহতি দিয়ে রুল নিষ্পত্তি করে দেন।