Monday, September 24Welcome khabarica24 Online

দুর্বার বিতর্ক উৎসবের ফাইনাল ও আগামীর দুর্বারদের সংবর্ধনা ২৭ জুলাই শুক্রবার

নিজস্ব প্রতিনিধি :
মীরসরাইয়ের আলোচিত স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন দুর্বার প্রগতি সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত দুর্বার বিতর্ক উৎসবের ফাইনাল, পুরস্কার বিতরণী, গুনীজন ও আগামীর দুর্বারদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ২৭ জুলাই শুক্রবার বেলা ২ টায় মীরসরাই উপজেলা জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এম.পি। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের ডিএমডি (পিআরএল) এম. এ কাইয়ূম, প্রধান আলোচক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ও নাহার এগ্রো লিমিটেডের সাবেক পরিচালক ড. মোহাম্মদ সামসুদ্দোহা, বিশেষ অতিথি মীরসরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান(ভারপ্রাপ্ত) ইয়াছমিন আক্তার কাকলী, নোয়াখালী জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী-পরিচালক মো.জসীম উদ্দিন ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার সাবরিনা রহমান লীনা। অনুষ্ঠানে সংগঠন কতৃক ২০১৮ সালে মনোনীত তিন গুনীজন কে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে অবদান রাখায় সম্মাননা স্বরূপ ‘দুর্বার প্রগতি পদক’ প্রদান করা হবে। পদক প্রাপ্তরা হলেন মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলে সামাজিক অবক্ষয় রোধে অবদান রাখায় মুক্তি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শেখ আতাউর রহমান, সমাজসেবায় সফিউল্লাহ চৌধুরী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা মো.কামরুল ইসলাম চৌধুরী ও নারীর অগ্রযাত্রায় জোরারগঞ্জ মহিলা কলেজের সভাপতি রাশেদা আক্তার মুন্নি। ফাইনাল বিতর্কে বিচারক প্যানেলে সভাপতি থাকবেন দৈনিক আজাদীর ফিচার সম্পাদক, নাট্যজন প্রদীপ দেওয়ানজী, বিচারক থাকবেন চ্যানেল আইয়ের ব্যুরো প্রধান, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, দৈনিক পূর্বদেশের সহকারী সম্পাদক, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের অর্থ সম্পাদক দেবদুলাল ভৌমিক ও দৈনিক সমকালের স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রচার-প্রকাশনা সম্পাদক আহমেদ কুতুব।সংগঠনের সাধারন সম্পাদক ইমাম হোসেন চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন মো.মহিবুল হাসান সজীব ও সভাপতিত্ব করবেন সংগঠনের সভাপতি আশিষ দাশ।

উল্লেখ্য যে, মীরসরাই ও সীতাকুন্ড উপজেলার আটটি কলেজ নিয়ে এ বিতর্ক প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়। যুক্তির তোড়ে পাল্টা যুক্তি উপস্থাপন করে শেষ পর্যন্ত বারইয়ারহাট ডিগ্রী কলেজ ও বিজয় স্মরণী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ফাইনাল নিশ্চিত করতে সক্ষম হন। ফাইনাল রাউন্ডে ‘তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতা যতটানা আশির্বাদ তার চেয়ে বেশি অভিশাপ’ এ বিষয়ের উপর বিতর্ক অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া উপজেলার ৭০টি স্কুল-মাদ্রাসা থেকে বাচাইকৃত এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত মেধায় অনন্য-আর্থিকভাবে অসচ্ছল এরূপ ৩৫ শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা, শিক্ষাবৃত্তি ও শিক্ষা সামগ্রী প্রদান করা হবে। তাদের উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন পূরণে সব সময় পাশে থাকবে এ সংগঠন