শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

খবরিকা ১৬৯ তম সংখ্যার সকল কবিতা সমূহ

kobita

 

মর্ত্য
প্রাচ্য দিবা
খুব কমই উন্মুক্ত হয় স্বর্গ সিংহদ্বার!
চব্বিশ ঘন্টাই থাকে
নরকে প্রবেশাধিকার!
কোনো এক মহাপ্রলয়ে-
হল স্বর্গনরক একাকার!
দেখা দিলো জন্ম-মৃত্যু-ভালোবাসা,
দুঃখ-জ্বরা এবং তাদের
বংশধরেরা-
মহাকাল ঘনীভূত মুহূর্তড়্গণে,
দ্বি-অসিত্মত্ব, শানিত্মতে রণে-
মানুষই পারে করতে আলাদা;
নরক সয়েও স্বর্গ ভ্রমনে!
এ পৃথ্বিীই আজ স্বর্গভূমি
নারকীয়তার নকশী জমি;
দেব-দানবে লড়ে একই দেহমাঝে-
সুর-অসুরেরা রাষ্ট্রে-সমাজে!
মানুষই পারে মিলিতে-মেলাতে
বস’-শক্তি যেমন একসাথে;
একটু যদি দেখো আঁখি মেলে
যে হৃদয়ে ভলোবাসা খেলে;
সবাই তেমনি চায় ভালোবাসা,
যেমনি তুমিও করো পাবার আশা;
তুমিও যদি আজ সবারে,
ভালোবাসো ভুলে এ সংসারে-
পৃথিবীই হবে আজ এখুনি-
মর্ত্যেই সেরা স্বর্গভূমি!!

 

বিদ্যালয়ের রীতি
মোমেনা আক্তার
আবুতোরাব উচ্চ বিদ্যালয়
দশম শ্রেণি
বিদ্যালয়ে যাই আমরা
সকাল ১০টায়।
ছুটি হয় আমাদের
বিকেল ৪টায়।
মাঝে আছে ৬ঘন্টা
কত না বিষয়।
পড়া, লেখা, গান, বাজনা
আরো কত কী!
আনন্দের মধ্যে দিয়ে মানি
বিদ্যালয়ের রীতি।

 

স্মৃতির শহর
তৌহিদুল ইসলাম
মিঠাছড়া
চাঁদের মতো নিরবে এসো প্রিয় নিশীথ রাতে,
ঘুম হয়ে পরশ দিও হে প্রিয় নয়ন পাতে।
তব তরে বাহিরে দুয়ার মর্ম
খুলিবে না এ জনমে প্রিয়তম।
মনের দুয়ার খুলি গোপনে এসো,
বিজড়িত রহিও স্মৃতির সাথে।
কসুম সুরভি হয়ে এসো নিশি পবনে,
রাতের পাপিয়া হয়ে প্রিয়া প্রিয়া ডাকিও বন ভবনে।

 

প্রিয় শখ
তানভীর হোসেন তুহিন
মীরসরাই পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়
ছোট থেকে বড় হলাম
কত কিছু পেলাম,
আবার কত কিছু হারালাম।
এই নিয়েই মোর জীবন
চার ভাই জিরো বোন।
চার ভাই আছি সাথে
সুখে আর দুখে,
হাসি মোরা দেখতে চাই
পিতামাতার মুখে।
পড়ালেখা করছি তাই
মনযোগের সাথে,
মা-বাবার মুখ উজ্জ্বল করবো

 

সারা এলাকাতে।
বৃষ্টির ছড়া
মোঃ ইমাম হোসেন ইমন
একাদশ শ্রেণি, প্র.কা.উ.চৌ. কলেজ
বৃষ্টি পড়ে টিনের চালে
বৃষ্টি পড়ে গাছে,
এসব দেখে খোকাখুকি
মনের আনন্দে নাচে।
বৃষ্টি পড়ে পুকুর পাড়ে
সবুজ ঘাসে ঘাসে,
ব্যাঙ ছানারা মায়ের সাথে
মনের সুখে নাচে।

Leave a Reply