Thursday, November 15Welcome khabarica24 Online

ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ: সৌদির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান ইরানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদের বাদশাহ খালেদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পেছনে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান। রোববার (৫ নভেম্বর) ইরানকে অভিযুক্ত করে রিয়াদের পক্ষ থেকে বিবৃতি দেওয়ার একদিন পর সোমবার (৬ নভেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে পাল্টা বিবৃতি দিয়ে তা প্রত্যাখ্যান করে তেহরান। শনিবার (৪ নভেম্বর) রাতে নিক্ষিপ্ত ওই ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই প্রতিহত করার দাবি করে সৌদির সশস্ত্র বাহিনী।

ইররানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম ক্কাসেমী ওই বিবৃতিতে বলেন, ‘হুথি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পেছনে ইরানের জড়িত থাকার দাবি ‘বিদ্বেষপূর্ণ, দায়িত্বজ্ঞানহীন, ধ্বংসাত্মক এবং উত্তেজনা সৃষ্টিকারী’।’

ইরান সরকারের এই মুখপাত্র বলেন, ‘ইয়েমেনের জবাব তাদের নিজেদের ব্যাপার এবং এটা সৌদি আরবের আগ্রাসনের ফল, যেটা কোনো দেশ চালায়নি বা এতে উস্কানিও দেয়নি।’

সংঘাতের অবসানে সংলাপে বসতে ইয়েমেনের বিবাদমান পক্ষগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে ক্বাসেমী বলেন, ইয়েমেনের বিরুদ্ধে দীর্ঘমেয়াদী সামরিক আগ্রাসনে নিজেদের অশুভ উদ্দেশ্য হাসিলে ব্যর্থ হয়ে সৌদি এখন অদ্ভূত মানসিক ক্রিয়াকলাপের মাধ্যমে ভিত্তিহীন ও পুরোপুরি মিথ্যা অভিযোগ তুলে তাদের পরাজিত জোটের জন্য আরও সমস্যা তৈরি করছে।

সুন্নিপন্থি প্রেসিডেন্ট আবদ-রাব্বু মনসুর হাদীর বিরুদ্ধে হুথিদের বিদ্রোহের পর ২০১৫ সালে তাদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে নামে সৌদির নেতৃত্বে আরব জোট। রিয়াদ শুরু থেকেই অভিযোগ করে আসছে, শিয়াপন্থি হুথিদের পেছনে রয়েছে একই সম্প্রদায় অধ্যুষিত রাষ্ট্র ইরান।

শনিবার রাতের ওই ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পর রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ’র মাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, হুথিদের এই আক্রমণের পেছনে রয়েছে তাদের পৃষ্ঠপোষক তেহরান। ইরান ‘যুদ্ধের মতো আচরণ’ (পটেনশিয়াল অ্যাক্ট অব ওয়্যার) করছে।