Saturday, November 25Welcome khabarica24 Online

এক ছবির জন্য ৫ হাজার কিলোমিটার পাড়ি!

 ‘বাদশাহো’ ছবির ইউনিট শুটিংয়ের প্রয়োজনে ভারতে রাজস্থানের যোধপুর, জয়সালমার, বিকানের, রানাউতার ও কুলধারাসহ বেশকিছু শহরে ঘুরেছে। এতে অভিনয় করেছেন অজয় দেবগন, এমরান হাশমি, বিদ্যুৎ জামাল, ইলিয়েনা ডি’ক্রুজ, এশা গুপ্তা ও সঞ্জয় মিশ্র। এটি মুক্তি পাবে আগামী ১ সেপ্টেম্বর।প্রযোজক ভূষণ কুমার ও পরিচালক মিলান লুথরিয়া গল্প ও চিত্রনাট্য অনুযায়ী সব নিখুঁতভাবে পর্দায় তুলে ধরতে আপ্রাণ চেষ্টা ধরে রেখেছেন। লাইন প্রডিউচার ও স্থানীয় গাইডদের সহায়তায় প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলো কিংবা অজপাড়াগাঁয়ে দৃশ্যধারণের জন্য নির্মাণাধীন স্থান রেকি করেছে ক্রু।
ছবিটির টিজারে দৃশ্যধারণের স্থানগুলো দেখে এর প্রমাণ পাওয়া গেছে। কিন্তু অনেকেই জানে না ‘বাদশাহো’ বাহিনীকে শুটিংয়ের জন্য যেতে হয়েছে মাইলের পর মাইল। যেমন রানাউতারে যাওয়ার জন্য তারা প্রতিদিন পাড়ি দিয়েছেন ১০৩ কিলোমিটার পথ। তাদের নিরাপত্তায় কয়েক কিলোমিটার পরপর পাহারায় ছিলেন দায়িত্বপ্রাপ্তরা।
দেখুন ‘বাদশাহো’ ছবির টিজার:

ক্লাইম্যাক্স দৃশ্যের কাজ হয়েছে জয়সালমার থেকে ৫৮ কিলোমিটার দূরে এশিয়ার বৃহত্তম চুনাপাথর খননস্থলে। ছবিটির ক্রু যোধপুর, জয়সালমার ও বিকানের শহরগুলোর মধ্যে ঘোরাফেরা করেছে, এগুলোর দূরত্ব ৩৩০ কিলোমিটার। এর মধ্যে যোধপুরে ছোট সরু গলিতে চলাফেরার জন্য অটোরিকশা ব্যবহার করতে হয়েছে তারকাদের। এ সময় তাদের সঙ্গে ছিল দেহরক্ষী।
এমরান ও এশা একবার ভুল বাহনে উঠে বসায় সড়কে জটলার মধ্যে পড়তে হয়েছিল। জানুয়ারি থেকে মার্চে প্রতিকূল আবহাওয়ার সঙ্গেও মানিয়ে নিতে হিমশিম খেয়েছেন ‘বাদশাহো’ ইউনিট। তখন তাপমাত্রা ছিল গড়ে ৩৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস, সঙ্গে বালি ঝড়ও বইছিল।
শুরুতে দূরত্বের ঝক্কি পোহালেও শুটিংয়ের স্থানগুলো বেশ ভালো লেগেছে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের। পরিচালক মিলান লুথরিয়া বলেছেন, ‘এটাই আমার অর্জন।’ শুটিং শেষে তিনি হিসাব করে দেখেছেন, তার কলাকুশলীদের ৫ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হয়েছে রাজস্থানজুড়ে।