বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

ইসরায়েলের তীব্র সমালোচনার মুখে জন কেরি

image_75529_0

ইসরায়েলের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও রাজনৈতিক ব্যবস্থাপনামন্ত্রী ইউভাল স্তেইনিৎজ রোববার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যায় এমন এক বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন।মিউনিখে অনুষ্ঠিত সিকিউরিটি ফোরামের এক বৈঠকে, জন কেরি শান্তি প্রতিষ্ঠায় ইসরায়েলের ভূমিকার সমালোচনা করে বিবৃতি দেন এবং শান্তি প্রতিষ্ঠায় তারা ব্যার্থ হলে তাদের আন্তর্জাতিকভাবে বয়কট করা হবে বলে মত প্রকাশ করেন। কেরির এমন মত ব্যক্ত হওয়ার পর ইসরায়েল-বলয়ে বেশ সাড়া পড়ে গেছে।ইউভাল স্তেইনিৎজ আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, কেরির এমন মন্তব্যের ফলে ফিলিস্তিনের বিদ্রোহীরা শান্তি বিরোধী তৎপরতায় আরও তৎপর হয়ে উঠবে। এ ধরনের মন্তব্য দুঃখজনক এবং জন কেরির কাছে কাম্য নয়। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু কেরির নাম উল্লেখ না করেই সমালোচনায় সুর মেলান। তার মত, যে প্রশ্নে ইসরায়েলের জনগণের নিরাপত্তা জড়িয়ে আছে, সেখানে কোন শক্তির বিরোধিতা কোন কাজে আসবে না।ফিলিস্তিনের ইসরায়েল অধিকৃত অঞ্চলে অবৈধভাবে বসতি স্থাপনের সমালোচনা করেন জন কেরি। এছাড়া ফিলিস্তিনের সঙ্গে মিটমাটের জন্যে ইসরায়েলের আন্তরিকতার অভাবকে দায়ী করেন।কেরির মুখপাত্র জেন পাস্কি স্তেইনিৎজ ও নেতানিয়াহুর নিন্দা প্রকাশের বিপরীতে কেরির পক্ষ নিয়ে একটি ইমেইল বিবৃতিতে বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ ধরনের বয়কটের কথা বলেননি। বরং তিনি এখনও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে ইসরায়েলকে বয়কটের বিরুদ্ধে। শান্তিপ্রক্রিয়া গতিশীল না হলে উভয়পক্ষই কিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, তিনি সেদিকেই দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন মাত্র।ইসরায়েল অধীকৃত অঞ্চলসমূহে জেনেভা আইন লঙ্ঘন করে ইসারায়েলের বসতি স্থাপনের ব্যাপারটিসহ একাধিক পররাষ্ট্রনীতিক প্রসঙ্গে এখনও কোন সিদ্ধান্তে আসতে ব্যর্থ হয়েছে ইসরায়েলের মন্ত্রীপরিষদ। একইসঙ্গে ফিলিস্তিনের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কোনপ্রকার আপোস-মিমাংসাও হয়নি।কিন্তু স্তেইনিৎজ তার জন কেরির প্রতি নিন্দাসূচক বিবৃতিতে পরোক্ষভাবে তা অস্বীকার করে গেছেন। তিনি বলেছেন, কেরি এ ক্ষতিকর মন্তব্য এমন এক সময়ে করলেন, যখন ছয় মাসের আলোচনার পর বেশ কিছু সমাধান সবেমাত্র আলোর মুখ দেখতে  শুরু করেছিল।