Friday, October 18Welcome khabarica24 Online

ইছাখালীতে রাস্তা বন্ধ করে উন্নয়ন নিয়ে মৎস চাষী-ঠিকাদার মুখোমুখি :: চলাচলের পথ রাখার দাবীতে মাছচাষিদের স্মারকলিপি

মীরসরাই প্রতিনিধি :: মীরসরাই উপজেলায় ইছাখালি ইউনিয়নের মুহুরী প্রকল্প এলাকার অর্থনৈতিক জোট টু চল্লিশগেট সড়কের পুরো রাস্তা বন্ধ করে কাজ করতে গিয়ে মৎস চাষী ও ঠিকাদারের লোকজনদের মুখোমুখি অবস্থা বিরাজ করছে। এদিকে মৎচাষীরা তাদের জীবন জীবিকা ব্যাহত না হতে একপার্শ্বে চলাচলের পথ খোলা রেখে উন্নয়ন কাজের দাবীতে স্মারক লিপি দেয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে। সোমবার ( ২৫ জুন) স্মারক লিপি প্রদানের পর এই বিষয়ে ঠিকাদারের কর্মীদের বিষয়টি সুরাহা না করে রাস্তার উন্নয়ন বন্ধ রাখার দাবী ও জানায় মৎস চাষীরা।
স্থানীয় মৎসচাষীগন জানান পুরো শুকনো মওসুম পেরিয়ে আসন্ন বর্ষার সময় পাউবোর অধিনে উপকূলীয় অর্থনৈতিক জোন টু চল্লিশ গেইট সড়ক এর মধ্যে শিল্প জোন থেকে চল্লিশ গেট পর্যন্ত কাঁচা রাস্তাটির উন্নয়ন কাজ শুরু করেছে পাউবো। সিডিএসপির প্রকল্পের অধিনে উক্ত রাস্তার একাংশের উন্নয়ন কাজ শুরু করেছে ট্রাম ইন্টারন্যাশনাল নামক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। উক্ত প্রতিষ্ঠান সম্প্রতি সেখানে উন্নয়ন কাজ শুরু করা কালীন সময়ে পুরো রাস্তায় কাদা মাটি ফেলে চলাচল সম্মূর্ণরুপে বন্ধ করে কাজ করতে চাইছে। মৎস চাষী সমিতির সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বলেন আমরা এলাকাবাসি ও মৎস চাষীদের চলাচল বন্ধ হওয়ার উপক্রম হওয়ায় উক্ত এলাকার অন্তঃত দুই শতাধিক মৎস চাষীর মাছ ক্রয় বিক্রয়, খাবার যোগান, মালামাল আনা নেয়া বন্ধ হলে সকল মৎস চাষী পথে বসা ছাড়া কোন গতি থাকবে না। অথচ ঠিকাদার এক পার্শ্বের অর্ধেকে সড়ক উন্নয়ন কাজ চলমান রেখে অপর পার্শ্ব চলাচলের জন্য উম্মুক্ত রাখলে আমরা মৎস চাষীরা সহ সহযোগিতা করতে চাইলে ও ঠিকাদার জোরপূর্বক মৎস চাষীদের বিরুদ্ধে অন্যায়ভাবে রাস্তা বন্ধ রাখার ঘোষনা দিয়ে মাইকিং করে। মৎসচাষি ফরিদ মেম্বার ও শাহ আলম জানায় আমাদের মাছের প্রকল্পগুলো বন্ধ করে আমাদের জীবিকার উপর আঘাত করছে বলে ইতিমধ্যে ঠিকাদারের সুপারভাইজার সেলিম ও পারভেজকে বিষয়টি সুরাহা হওয়া পর্যন্ত রাস্তার উন্নয়ন কাজ বন্ধ করে রাখার দাবী ও জানান, নইলে অনাকাংখিত ঘটনার হুমকি ও দেন।
অথচ এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন এবং উপজেলা মৎস অফিসার মাহমুদুর রহমান এর কাছে জানতে চাইলে যাহা নিয়ম বহির্ভূত ও চলাচল বন্ধ করার অনুমতি কাউকে দেয়া হয়নি । এই বিষয়ে উক্ত সড়ক উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ পাউবোর স্থানীয় সহকারি প্রকৌশলী ফজলুল হক এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমরা মৎসচাষী ও ঠিকাদার কারোই যেন ক্ষতি না হয় তেই নিরিখেই সমস্যার সমাধান আশা করছি। তিনি এই বিষয়ে উভয় পক্ষকে নিয়ে শীঘ্রই বসে সমাধান করবেন বলে জানান।