Tuesday, July 25Welcome khabarica24 Online

ইছাখালীতে জমিসংক্রান্ত বিবাদ নিয়ে একই পরিবারের ৫ জনকে পিটিয়ে আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি :: মীরসরাই উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের চরশরত গ্রামে জমির দখল নিয়ে বিবাদ এর জের ধরে হামলায় এক হিন্দু পরিবারের ৫জন গুরুতর আহত । ঘটনার এক পর্যায়ে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আহতরা এখন মস্তাননগর হাসপাতালে চিকিৎসাধিন।
উপজেলার ৬ নং ইছাখালী ইউনিয়নের চরশরত গ্রামের স্থানীয় ইউপি সদস্য নিতাই চরন দাস জানায় এলাকার আলী আহমদ ও সালেক গ্রুপ বৃহস্প্রতিবার ( ১৩ জুলাই) দুপুর ৩টায় জমি দখলের বিষয়কে কেন্দ্র করে যুবক আকাশ চন্দ্রকে জমির ঘাস তোলায় পিটিয়ে আহত করে। এসময় আকাশের পিতা সনজিত দাশ এর প্রতিবাদ করতে যাওয়ায় প্রতিপক্ষ আরো দলবল নিয়ে লাঠিসোটা দিয়ে সনজীত কুমার দাস ( ৪০), তার পিতা নারায়ন চন্দ্র দাস ( ৭০), স্ত্রী বিউটি রানী দাস ( ৩৫), মা দেবী বালা ( ৬৫) ও পুত্র আকাশ চন্দ্রকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। ঘটনার এক পর্যায়ে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে এলাকাবাসী জোরারগঞ্জ থানায় খবর পাঠালে থানার এসআই সাইফুল ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে। আহতরা বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে চিকিৎসাধিন। হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডাঃ অমিত জানান আহতদের মধ্যে সনজিত ও নারায়নের হাত পা ও ভেঙ্গেছে কিনা এখনো নিশ্চিত নয়। তবুও সবাইকেই এক্সরে করাতে বলেছি। আবার আহত সনজিতকে এখনো ঝুকিমুক্ত বলা যাচ্ছে না তাই চমেক নিয়ে যেতে হতে পারে বলে তিনি জানান। জোরারগঞ্জ থানার এসআই বিপুল চন্দ্র বেদনাথ জানান বিষয়টি আমরা অবহিত হয়েছি, অভিযোগ পেলে আমরা প্রয়োজনীয় সকল আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবো।
স্থানীয় মেম্বার নিতাই চরন দাস আরো জানান ইউপি নির্বাচনে আলী আহমদ আমার সাথে ভোটযুদ্ধে হেরে যাবার পর নানা ভাবে এলাকায় জমি ও খাল দখল সহ নানা বিছৃংখলা সৃষ্টি করে আসছে। একটি সিন্ডিকেট সৃষ্টি করে ডাউরখালী খালে অন্যায়ভাবে বাঁধ দিয়ে মৎস প্রকল্প করে পুরো গ্রামে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে ফসলি জমি ও ঘরবাড়ির ক্ষয়ক্ষতি করে যাচ্ছে। তিনি এই বিষয়ে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।