শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ১৪ কার্তিক ১৪২৮খবরিকা অনলাইনে আপনাকে স্বাগতম।

আল-জাওয়াহিরির অডিও বার্তার সঙ্গে হেফাজতের সম্পর্ক নেই’

image_52559.hafazat

 

ইউটিউবসহ কয়েকটি টেলিভিশন ও সংবাদপত্রে আল-কায়েদা নেতা আইমান আল-জাওয়াহিরির নামে প্রচারিত অডিও বার্তার সঙ্গে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন দলটির আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী ও মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী। আজ শনিবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে তারা এ কথা জানান।যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, আইমান আল-জাওয়াহিরি আল-কায়েদা নেতা। জাওয়াহিরি বা আল-কায়েদা সংগঠনটি সাম্রাজ্যবাদী শক্তির সৃষ্টি। কে বা কারা কোন উদ্দেশে এই অডিও বার্তা প্রচার করছে, তা হেফাজতের জানা নেই। অডিও বার্তাটি দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বসহ মুসলমানদের বিরুদ্ধে নতুন আরেক ষড়যন্ত্র হতে পারে।বিবৃতিতে আল্লামা শফী ও বাবুনগরী জানান, হেফাজতে ইসলাম ইমান-আকিদার সুরক্ষা, ইসলাম অবমাননা রোধ ও দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষায় অরাজনৈতিক অবস্থানে থেকে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ ও ১৩ দফার আন্দোলন করে যাচ্ছে। শাপলা চত্বরের ট্র্যাজেডিসহ নানা জুলুম-অত্যাচার, হামলা-মামলা, গ্রেপ্তার ও শত হয়রানি সংগঠনটির বিরুদ্ধে করা হয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও হেফাজতে ইসলাম কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা বা ভাঙচুরের সঙ্গে না জড়িয়ে চরম ধৈর্যের পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে। অথচ হেফাজতে ইসলামকে অরাজনৈতিক অবস্থান থেকে লক্ষ্যচ্যুত করতে নানা অপবাদ ও মিথ্যাচারের মাধ্যমে উস্কানিমূলক ষড়যন্ত্র একের পর এক চলছেই।বিবৃতিতে দুই নেতা আরো জানান, দেশ ও জাতির অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করার কারণেই জুলুম-অত্যাচার, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, পাপাচার ও ইসলামবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত সুবিধাবাদীদের চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছে দেশের আলেম সমাজ ও কওমি মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকেরা। এ কারণেই বিভিন্ন সময় সন্ত্রাস ও কথিত জঙ্গিবাদের সঙ্গে কওমি মাদ্রাসা ও আলেম সমাজকে জড়িয়ে নানা মিথ্যাচার ও প্রচারণা চালানো হয়েছে। দেশ থেকে থেকে ইসলামি শিক্ষা ও মুসলিম চেতনাবোধ ধ্বংস করে দিতে এ ধরনের তত্পরতা চালানো হচ্ছে।

 

উৎস-কালেরকন্ঠ